করোনার বিধিনিষেধ আরও শিথিল করল ভারত

ভারতে করোনা সংক্রমণ কমে যাওয়া এবং টিকাদান শুরুর প্রেক্ষাপটে ফেব্রুয়ারি মাসের জন্য স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত নতুন নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। এতে আগের আরোপ করা বিধিনিষেধ আরও কমানো হয়েছে। দেশটিতে সুইমিং পুল ব্যবহার এবং সিনেমা হলে দর্শক সংখ্যার নিষেধাজ্ঞা পুরোপুরি তুলে নেয়া হয়েছে। ভারতে সুইমিং পুল ব্যবহারে আগামী মাস থেকে আর কোনো রকম নিষেধাজ্ঞা থাকছে না। দেশের সকল নাগরিক সুইমিং পুল ব্যবহার করতে পারবেন। এর আগে করোনা সংক্রমণ শুরুর পর থেকে শুধুমাত্র অ্যাথলেটদের জন্য সুইমিং পুল ব্যবহারের অনুমতি ছিল। এছাড়া ৫০ শতাংশ নয়, সিনেমা হলগুলোতে আরো বেশি দর্শক প্রবেশের অনুমতি দেয়া হয়েছে। একইসঙ্গে যেকোনো সামাজিক অনুষ্ঠানেও আসন সংখ্যার ৫০ শতাংশের বেশি মানুষ অংশগ্রহণ করতে পারবেন। তবে দেশটির সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে চূড়ান্ত গাইডলাইন প্রকাশ করবে।বিমান ভ্রমণের ক্ষেত্রেও বেশ কিছু ছাড় মিলবে। ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জারি করা নতুন বিধি কার্যকর হবে ১ ফেব্রুয়ারি থেকে। তবে সকল ক্ষেত্রেই নিজস্ব গাইডলাইন তৈরি করতে পারবে রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলগুলি। এসব ছাড় ঘোষণা করলেও দেশটির সরকারের পক্ষ থেকে সতর্ক করা হয়েছে যে, কোনো ভাবেই যেন কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে না যায় তার ওপর নজর রাখতে হবে। এমএইচআর/এমকেএইচ

করোনার বিধিনিষেধ আরও শিথিল করল ভারত

ভারতে করোনা সংক্রমণ কমে যাওয়া এবং টিকাদান শুরুর প্রেক্ষাপটে ফেব্রুয়ারি মাসের জন্য স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত নতুন নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। এতে আগের আরোপ করা বিধিনিষেধ আরও কমানো হয়েছে। দেশটিতে সুইমিং পুল ব্যবহার এবং সিনেমা হলে দর্শক সংখ্যার নিষেধাজ্ঞা পুরোপুরি তুলে নেয়া হয়েছে।

ভারতে সুইমিং পুল ব্যবহারে আগামী মাস থেকে আর কোনো রকম নিষেধাজ্ঞা থাকছে না। দেশের সকল নাগরিক সুইমিং পুল ব্যবহার করতে পারবেন। এর আগে করোনা সংক্রমণ শুরুর পর থেকে শুধুমাত্র অ্যাথলেটদের জন্য সুইমিং পুল ব্যবহারের অনুমতি ছিল।

এছাড়া ৫০ শতাংশ নয়, সিনেমা হলগুলোতে আরো বেশি দর্শক প্রবেশের অনুমতি দেয়া হয়েছে। একইসঙ্গে যেকোনো সামাজিক অনুষ্ঠানেও আসন সংখ্যার ৫০ শতাংশের বেশি মানুষ অংশগ্রহণ করতে পারবেন। তবে দেশটির সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে চূড়ান্ত গাইডলাইন প্রকাশ করবে।
বিমান ভ্রমণের ক্ষেত্রেও বেশ কিছু ছাড় মিলবে।

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জারি করা নতুন বিধি কার্যকর হবে ১ ফেব্রুয়ারি থেকে। তবে সকল ক্ষেত্রেই নিজস্ব গাইডলাইন তৈরি করতে পারবে রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলগুলি।

এসব ছাড় ঘোষণা করলেও দেশটির সরকারের পক্ষ থেকে সতর্ক করা হয়েছে যে, কোনো ভাবেই যেন কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে না যায় তার ওপর নজর রাখতে হবে।

এমএইচআর/এমকেএইচ