জাহান্নামের আগুন থেকে মুক্তির দোয়া

জাহান্নাম থেকে মুক্তি প্রত্যেক মুমিনের অন্যতম কাম্য। আল্লাহর অবাধ্য হয়ে জাহান্নামে যেতে না হয়, তার জন্য প্রার্থনা করা ঈমানদারগণের একপ্রকার কর্তব্য। ঈমানদারগণ যাতে অন্যায় ও পাপাচার থেকে ...

জাহান্নামের আগুন থেকে মুক্তির দোয়া

জাহান্নাম থেকে মুক্তি প্রত্যেক মুমিনের অন্যতম কাম্য। আল্লাহর অবাধ্য হয়ে জাহান্নামে যেতে না হয়, তার জন্য প্রার্থনা করা ঈমানদারগণের একপ্রকার কর্তব্য। ঈমানদারগণ যাতে অন্যায় ও পাপাচার থেকে মুক্তি পায়, হাশরের ময়দানে লাঞ্ছিত না হয় এবং ঈমানের সহিত মৃত্যু হয়। সে ব্যাপারে আল্লাহ তাআলা বান্দাকে রাসুলের(সা.) মাধ্যমে তার কাছে ক্ষমা প্রার্থনার বিষয়টি শিক্ষা দিয়েছেন।  

প্রত্যেক ঈমানদার ব্যক্তি ফজরের নামাজের পরে আর মাগরিবের নামাজের পরে সাতবার করে ছোট্ট একটি দোয়া পড়লে, আল্লাহর দয়ায় জাহান্নামের আগুন থেকে মুক্তি পেতে পারে। 

দোয়াটি হলো: اللَّهُمَّ أَجِرْنِى مِنَ النَّارِ (বাংলা উচ্চারণ: আল্লাহুম্মা আজিরনি মিনান নার।)
অর্থ: “হে আল্লাহ! আমাকে জাহান্নামের আগুন থেকে মুক্তি দাও’’


ফজিলত ও পড়ার নিয়ম: হজরত মুসলিম ইবনে হারেস তামিমি [রা.] বলেন রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমাকে কানে কানে বললেন, যখন মাগরিবের নামাজের সালাম ফেরাবে, তখন কারো সঙ্গে কথা বলার আগে এই দোয়াটি সাত বার পড়বে।

যদি তুমি পড় আর ওই রাতেই তুমি মারা যাও তাহলে তোমার জাহান্নাম থেকে মুক্তির ফায়সালা লিখে দেয়া হবে। ফজরের নামাজের পরও এ দোয়াটি একই নিয়মে সাতবার পড়বে। যদি তুমি পড়ে থাক আর ওই দিনেই তুমি মারা যাও তাহলে তোমার জন্য জাহান্নাম থেকে মুক্তির ফায়সালা লিখে দেয়া হবে। 


[আবু দাউদ-৫০৮১ নাসায়ি সুনানে কুবরা-৯৯৩৯ সহি ইবনে হিব্বান-২০২২]