দামুড়হুদায় আপত্তিকর অবস্থায় প্রধান শিক্ষক আটক! উভয় পক্ষের মিমাংসা:অভিযোগ প্রত্যাহার

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার নতিপোতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মমিনুল ইসলাম মমিনকে এক নারীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় আটক করেছে স্থানীয়রা।আটকের পর তাকে গণধোলাই দিয়ে রক্তাক্ত জখম করে থানা পুলিশে সোপর্দ করা হয়।শনিবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার ভগিরাতপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আজ রোববার দুপুরে উভয় পক্ষের মধ্যে মিমাংসা করে থানা থেকে মুক্ত হয় ও উভয় আপস মিমাংসা করে থানা থেকে তাদের অভিযোগ পত্র প্রত্যাহার করে নেয়।

দামুড়হুদায় আপত্তিকর অবস্থায় প্রধান শিক্ষক আটক! উভয় পক্ষের মিমাংসা:অভিযোগ প্রত্যাহার

উল্লেখ্য শনিবার রাতে মমিনুল ইসলামকে উপজেলার ভগিরাতপুর গ্রামের এক বাড়িতে এক নারীর সঙ্গে অপত্তিকর অবস্থায় আটক করে স্থানীয়রা। তারা তাকে গণধোলাই দিয়ে দামুড়হুদা মডেল থানা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে থানায় নেয়। এসময় নারী বাদী হয়ে ধর্ষনচেষ্টা ও মমিন মাষ্টার তাকে পরিকল্পিতভাবে ডেকে ফাঁসানো হয়েছে ও মারধর করার অভিযোগ এনে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
দামুড়হুদা মডেল থানার সেকেন্ড অফিসার এস আই বাকিবিল্লা বলেন, তারা নিজেরা মিমাংসা করে  উভয়পক্ষ তাদের অভিযোগ প্রত্যাহার করে নেয়। ফলে কোন পক্ষের অভিযোগ না থাকায় মমিনুল ইসলাম মমিন মাষ্টারকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।