ধর্ম মা ডেকে অচেতন করে ঘরের মালামাল লুট

ধর্ম মা ডেকে পুলিশের এসআই পরিচয়ে বাড়িতে এসে চায়ের সাথে চেনতানাশক খাইয়ে প্রায় পঁচিশ লাখ টাকার মালামাল নিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে মাদারীপুর সদর উপজেলার কুনিয়া ইউনিয়নের ভরুয়াপাড়া গ্রামে। রবিবার সকাল ৯টার দিকে বাড়ির পাঁচজনকে উদ্ধার...

ধর্ম মা ডেকে অচেতন করে ঘরের মালামাল লুট

ধর্ম মা ডেকে অচেতন করে ঘরের মালামাল লুট

বাংলাদেশ

মাদারীপুর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস

ধর্ম মা ডেকে পুলিশের এসআই পরিচয়ে বাড়িতে এসে চায়ের সাথে চেনতানাশক খাইয়ে প্রায় পঁচিশ লাখ টাকার মালামাল নিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে মাদারীপুর সদর উপজেলার কুনিয়া ইউনিয়নের ভরুয়াপাড়া গ্রামে। রবিবার সকাল ৯টার দিকে বাড়ির পাঁচজনকে উদ্ধার করে রাজৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, শনিবার রাতে সদর উপজেলার ভরুয়াপাড়া গ্রামের মৃত ছালাম হাওলাদারের স্ত্রী হাসিয়া বেগমের দুই বছর আগে পরিচয় হওয়া পুলিশের এসআই পরিচয়ধারী রবিউল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি বেড়াতে আসেন। কথা-বার্তা ও গল্প-গুজবের এক পর্যায়ে চা-বিস্কুট খেতে দেয় রবিউলকে। তবে রবিউল কৌশলে চায়ের সাথে চেতনানাশক মিশিয়ে বাড়ির সবাইকে খাইয়ে দেয়। এরপর রবিবার সকালে স্থানীয়রা ঘরের দরজা বন্ধ দেখে সন্দেহ হয়। পরে দরজা ভেঙে সবাইকে অচেতন দেখতে পায়। এসময় হাসিয়া বেগম, তার ভাই ইমরান হাওলাদার, চাচি মনোয়ারা বেগম, মনোয়ারা আক্তারকে উদ্ধার করা হয়। পরে তাদের রাজৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। প্রতারকরা স্বর্ণালঙ্কার, নগদ অর্থ, মোটরসাইকেটসহ প্রায় ২০ লাখ টাকার মালামাল নিয়ে যায়।

সদর থানার ওসি কামরুল মিয়া জানান, দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পুলিশ। এখনো ক্ষতিগ্রস্তরা কোন মামলা করেনি। তবে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার প্রস্তুতি চলছে।

(ঢাকাটাইমস/১০জানুয়ারি/এলএ)

© dhakatimes24.com