প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় স্কুলছাত্রীকে অপহরণের ১৭ দিন পর উদ্ধার

মানিকগঞ্জের শিবালয়ে ১৭ বছর বয়সী দশম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে অপহরণের ১৭ দিন পর অবশেষে উদ্ধার করেছে শিবালয় থানা পুলিশ।

প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় স্কুলছাত্রীকে অপহরণের  ১৭ দিন পর উদ্ধার
ছবিঃ সংগৃহীত

 অপহরণকারী ২৫ বছর বয়সী রাকিব হোসেন ও তার সহযোগী ২৩ বছর বয়সী মো. রনিকে আটক করেছে পুলিশ। অপহরণকারী দুজন মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার কেওয়ারজানি এলাকার বাসিন্দা ও বরংগাইল বাজাজ মোটরসাইকেল শোরুমের মেকানিক্স।

গত মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) ঢাকার আশুলিয়ার খান কলোনীর মালেক খানের ভাড়া বাসা থেকে অপহৃত স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধার করে পুলিশ। 

পুলিশ জানায়, মেয়েটি শিবালয় উপজেলার বরংগাইল গোপাল চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণিতে লেখাপড়া করে। সে স্কুলের নিকটবর্তী বাজাজ শোরুমের পাশেই প্রাইভেট পড়ত। পড়তে যাওয়া আসার সময় রাকিব তাকে প্রেম প্রস্তাব দেয়। প্রস্তাবে রাজি না হওযায় তাকে বিভিন্ন সময় নানা ভয়-ভীতি দেখাতো রাকিব। অবশেষে গত মাসের ২৪ তারিখে সকালের দিকে দীপা পড়তে আসলে রাকিব তার সহযোগী রনি, বাবু, রাসেল, সোহেলসহ পাঁচজন মিলে একটি হাইস মাইক্রোবাসে জোরপূর্বক অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে ভিকটিমের বাবা শিবালয় থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেন।

শিবালয় থানার অফিসার ইনর্চাজ ফিরোজ কবীর জানায়, ভিকটিমের বাবা থানায় একটি অপহরণ মামলা করে। বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে আমার থানার তদন্ত ওসি আশিষ কুমার সান্যালের নেতৃত্বে প্রযুক্তি ব্যবহার করে পুলিশের একটি টিম মুন্সিগঞ্জের সদর এলাকার মীরকাদিম এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে সহযোগী আসামি রনিকে আটক করে। তার তথ্য অনুযায়ী পরে ঢাকার আশুলিয়া থেকে ভিকটিমকে উদ্ধার করে এবং অপহরণকারী রাকিবকে আটক করা হয়।