বন্ধকী স্বর্ণ আত্মসাৎ মামলায় ৫ ব্যাংক কর্তা গ্রেফতার

বন্ধকী স্বর্ণ আত্মসাতের অভিযোগে করা মামলায় বাংলাদেশ সমবায় ব্যাংক লিমিটেডের ৫ কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন। আজ মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর সেগুনবাগিচা এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

বন্ধকী স্বর্ণ আত্মসাৎ মামলায় ৫ ব্যাংক কর্তা গ্রেফতার
দুদকের পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- সমবায় ব্যাংকের উপ-মহাব্যবস্থাপক আব্দুল আলিম, সহকারী মহাব্যবস্থাপক (হিসাব) হেদায়েত কবীর, সাবেক প্রিন্সিপাল অফিসার ও সমবায় ভূমি উন্নয়ন ব্যাংকের এসএস রোড শাখার ব্যবস্থাপক মাহবুবুল হক, প্রিন্সিপাল অফিসার ওমর ফারুক ও সিনিয়র অফিসার (ক্যাশ) নুর মোহাম্মদ। 

এদিন সকালে সমবায় ব্যাংকের চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদ মহিসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে দুদক উপ-পরিচালক মোহাম্মদ ইব্রাহিম কমিশনের সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঢাকা-১ এ একটি মামলা করেন। 

মামলা দায়েরের পরপরই দুদক কর্মকর্তা ইব্রাহিমের নেতৃত্বে একটি দল ওই ৫ কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করে। 

মামলার অপর আসামিরা হলেন- সমবায় ব্যাংকের সহকারী মহাব্যবস্থাপক (স্বর্ণ বন্ধকী ঋণ বিভাগ) আশফাকুজ্জামান, সহকারী অফিসার আব্দুর রহিম ও নাহিদা আক্তার।

মামলার অভিযোগে বলা হয়েছে, আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে বাংলাদেশ সমবায় ব্যাংক থেকে জালিয়াতির মাধ্যমে ২ হাজার ৩১৬ জন গ্রাহকের মোট ৭ হাজার ৩৯৮ ভরি ১১ আনা জামানতকৃত স্বর্ণ বিদ্যমান আইন অনুসরণ না করে আত্মসাতের চেষ্টা করেন। ওই স্বর্ণের অর্থমূল্য ৪০ কোটি ৮ লাখ ৬০ হাজার ৮৮৮ টাকা। 

এ অভিযোগ আরও বলা হয়, এর মধ্যে ভুয়া ব্যক্তিকে প্রকৃত ব্যক্তি সাজিয়ে ১১ কোটি ৩৯ লাখ ৮৮ হাজার ৬৮৬ টাকার স্বর্ণ গ্রাহককে না দিয়ে আসামিরা আত্মসাৎ করেন।