বাঁশঝাড়ে নবজাতকে ফেলে হাসপাতাল থেকে পালালেন তরুণী

হাসপাতালে সন্তান প্রসবের এক দিন পর বাঁশঝাড়ে ফেলে গেলেন এক মা। শিশুটিকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। ঘটনাটি ঘটেছে কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলার গোপালপুর গ্রামে। বর্তমানে শিশুটি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গাইনি বিভাগে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

বাঁশঝাড়ে নবজাতকে ফেলে হাসপাতাল থেকে পালালেন তরুণী
ছবিঃ সংগৃহীত

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে উপজেলার গোপালপুর গ্রামের তহিদুল ইসলামের স্ত্রী খাদিজা খাতুন (২০) নামের সাত মাসের এক গর্ভবতী মহিলা প্রসবজনিত সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়। ভর্তির পর মহিলাটি একটি কন্যা সন্তান জন্ম দেয়। ওই সন্তানের নাম দেয়া হয় সুবর্ণা। আজ শনিবার হাসপাতাল থেকে কোনও ছাড়পত্র না নিয়েই সন্তানসহ খাদিজা হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যায় এবং ওই এক দিনের শিশু সুবর্ণাকে হাসপাতালের পাশের একটি বাঁশঝাড়ে ফেলে দিয়ে পালিয়ে যায়।

শিশুটির কান্নার আওয়াজ শুনে এলাকার লোকজন শিশুটিকে উদ্ধার করে। সেখান থেকে গোপালপুর গ্রামের আলী হোসেনের স্ত্রী শাপলা বেগম শিশুটিকে আবারও হাসপাতালে ভর্তি করেন। শিশুটিকে শাপলা বেগম দত্তক নেয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। তবে কেন শিশুটির মা তাকে ফেলে গেলেন সে বিষয়ে জানা সম্ভব হয়নি।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. এএসএম সায়েম আরটিভি নিউজকে জানান, শিশুটি অপরিণত ভূমিষ্ঠ হয়েছে। তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। ঘটনাটি থানা পুলিশকে জানানো হয়েছে।