বায়ার্নের রেকর্ড ক্লাব বিশ্বকাপের শিরোপা জিতে

ক্লাব বিশ্বকাপের ফাইনালে মেক্সিকান ক্লাব তাইগ্রেসকে ১-০ গোল ব্যবধানে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে জার্মান জায়ান্ট ক্লাব বায়ার্ন মিউনিখ। জয় নির্ধারণী একমাত্র গোলটি করেন বাঁজামাঁ পাভার্দ। এ জয়ের ফলে বার্সেলোনার পর দ্বিতীয় দল হিসেবে বছরে ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক মিলে ছয় শিরোপার সবগুলোই জিতল তারা। টুর্নামেন্ট সেরা ফুটবলার নির্বাচিত হয়েছেন চ্যাম্পিয়ন দলের ফরোয়ার্ড রবার্ট লেভানডোস্কি।

বায়ার্নের রেকর্ড  ক্লাব বিশ্বকাপের শিরোপা জিতে
ছবিঃ সংগৃহীত

ক্লাব বিশ্বকাপের ফাইনালে মেক্সিকান ক্লাব তাইগ্রেসকে ১-০ গোল ব্যবধানে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে জার্মান জায়ান্ট ক্লাব বায়ার্ন মিউনিখ। জয় নির্ধারণী একমাত্র গোলটি করেন বাঁজামাঁ পাভার্দ। এ জয়ের ফলে বার্সেলোনার পর দ্বিতীয় দল হিসেবে বছরে ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক মিলে ছয় শিরোপার সবগুলোই জিতল তারা। টুর্নামেন্ট সেরা ফুটবলার নির্বাচিত হয়েছেন চ্যাম্পিয়ন দলের ফরোয়ার্ড রবার্ট লেভানডোস্কি।

বায়ার্ন মিউনিখ গত বছর একাধারে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, বুন্দেসলিগা, জার্মান কাপ, উয়েফা সুপার কাপ ও জার্মান সুপার কাপে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে। ক্লাব বিশ্বকাপ হওয়ার কথা ছিল গত ডিসেম্বরে, কিন্তু করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে তা পিছিয়ে দেওয়া হয়।

কাতারের এডুকেশনাল সিটি ফুটবল স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার রাতে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে মেক্সিকান ক্লাব তাইগ্রেসের বিপক্ষে জেতা সহজ ছিল না। পুচকে দলটি ঘাম ছড়িয়ে ছেড়েছে বায়ার্নের। একের পর আক্রমণ করতে থাকলেও কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পাচ্ছিল না হান্স ফিকের শিষ্যরা।

ম্যাচের ১৮তম মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে জোরালো শটে বল জালে পাঠিয়েছিল জশুয়া কিমিচ। কিন্তু ভিএআরের সাহায্যে অফসাইডের বাঁশি বাজান রেফারি। কিমিচের শটের সময় অফসাইড পজিশনে বলের লাইনে ছিলেন রবের্ত লেভানডোস্কি।

সেমি-ফাইনালে ব্রাজিলিয়ান ক্লাব পালমেইরাসকে হারিয়ে উত্তর আমেরিকার প্রথম দল হিসেবে প্রতিযোগিতাটির ফাইনালে আসা তাইগ্রেস ৩৫তম মিনিটে আরেক দফা বেঁচে যায়। লেরয় সানের শটে বল পোস্টে লাগে।

প্রথমার্ধ গোলশূন্যতে শেষ হওয়ার পর দ্বিতীয়ার্ধের ৫৯তম মিনিটে এগিয়ে যায় বায়ান মিউনিখ। কিমিচের ক্রসে লেভানডোস্কির হেড পোস্ট ছেড়ে এগিয়ে এসে ঠেকানোর চেষ্টা করেন গোলরক্ষক। বল পেয়ে ফাঁকা জালে পাঠান পাভার্দ।

৮২তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ হতে পারতো। বদলি নামা কোরোঁতাঁ তোলিসোর দূরপাল্লার শট লাগে পোস্টে। একটু পর ডাবল সেভ করেন গোলরক্ষক।
এরপর ম্যাচে আর গোল না হলে ১-০ গোল ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে জার্মান জায়ান্টরা।