বিজিবি কর্তৃক স্বর্নের বারসহ ০২ জন স্বর্ন চোরাকারবারী ও ভারতীয় ইনজেকশন আটক

বিজিবির মহেশপুর ব্যাটালিয়ন (৫৮ বিজিবি) ও চুয়াডাঙ্গা ব্যাটালিয়ন (৬ বিজিবি) কর্তৃক চোরাচালান বিরোধী অভিযান

বিজিবি কর্তৃক স্বর্নের বারসহ ০২ জন স্বর্ন চোরাকারবারী ও ভারতীয় ইনজেকশন আটক

১৭ জানুয়ারি ২০২১ তারিখ আনুমানিক ০৪৩০ ঘটিকার সময় মহেশপুর ব্যাটালিয়ন     (৫৮ বিজিবি) এর অধিনস্ত খোসালপুর বিওপির বিশেষ টহল দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, মহেশপুর থানাধীন খোসালপুর গ্রামস্থ বাকোশপোতা বাজারের পার্শ্বে স্বর্ন চোরাচালানের জন্য কিছু স্বর্ন চোরাকারবারী উক্ত স্থানে অবস্থান করছে। উক্ত সংবাদের ভিতিত্তে আনুমানিক ০৫৩০ ঘটিকায় খোসালপুর বিওপির ০৫ সদস্য বিশিষ্ট বিশেষ টহল দল নায়েক মোঃ মাসুদুল হক এর নেতৃত্বে ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর উপজেলার খোসালপুর গ্রামের বাকোশপোতা বাজারের মধ্যে হতে চোরাচালান বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে স্বর্ন চোরাকারবারী (এক) মোঃ টুটুল মিয়া(৩০), পিতা-মোঃ রফিকুল ইসলাম, গ্রাম-উত্তর চেঙ্গাচর, ডাকঘর-সাতনল, থানা-মতলব, জেলা-চাদপুর এবং (দুই) মোঃ আব্বাস আলী(৩৬), পিতা-মোঃ নওশের আলী মন্ডল, গ্রাম-খোসালপুর, ডাকঘর-নেপা, থানা-মহেশপুর, জেলা-ঝিনাইদহকে ০২টি স্বর্নের বার (২৩ ভরি ১৫ আনা ০৩ রতি) এবং ০৪টি মোবাইলসহ আটক করা হয়। আটককৃত আসামীদের ০২টি স্বর্নের বার এবং মোবাইল ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর থানায় মামলা দায়ের এবং সোপর্দ করা হয়েছে।

১৭ জানুয়ারি ২০২১ তারিখ রাত আনুমানিক ০৮ টা ৩০ মিনিটের সময় চুয়াডাঙ্গা ব্যাটালিয়ন (৬ বিজিবি) এর ঠাকুরপুর বিওপির টহল কমান্ডার হাবিলদার মোঃ আমিনুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে অভিযান চালিয়ে চুয়াডাঙ্গা জেলার দর্শনা থানার অন্তর্গত পীরপুরকুল্লা গ্রামের পীরপুরকুল্লা মাঠ হতে ১১০০ পিচ নোপেইন ইনজেকশন আটক করতে সক্ষম হয়, যার আনুমানিক মূল্য ৩৮,৫০০/-(আটত্রিশ হাজার পাঁচশত) টাকা। আটককৃত মালামাল দর্শনা কাস্টমস অফিসে জমা করা হয়েছে।