বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে স্ত্রী সুজাতা, বিয়েবিচ্ছেদের ঘোষণা সৌমিত্র’র

পশ্চিমবঙ্গের প্রধান দুই রাজনৈতিক শিবিরেই চলছে ব্যাপক রদবদল। দু’দিন আগে তৃণমূল ছেড়ে শুভেন্দু অধিকারীসহ বেশ কয়েকজন শীর্ষ নেতা যোগ দিয়েছেন বিজেপিতে।

বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে স্ত্রী সুজাতা, বিয়েবিচ্ছেদের ঘোষণা সৌমিত্র’র

সোমবার (২১ ডিসেম্বর) দুপুরে প্রভাবশালী বিজেপি সাংসদের স্ত্রী সুজাতা খাঁ-কে তৃণমূলে এনে পাল্টা জবাব দিয়েছেন দলটির সভানেত্রী ও রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যদিও এরপরই তৃণমূলের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক কারণে দল ভাঙার অভিযোগ উঠেছে। 

ইট মারলে পাটকেল খেতে হয়- বহু প্রচলিত এই প্রবাদটিই যেন পশ্চিমবঙ্গের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতির প্রতীক হয়ে দাঁড়িয়েছে। দুদিন আগে তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এক সময়ের সঙ্গী শুভেন্দু অধিকারীকে দলে নিয়ে ২০২১ সালে পশ্চিমবঙ্গ দখলের ডাক দিয়েছিলেন বিজেপির শীর্ষ নেতা ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। ২৪ ঘণ্টা না পেরুতেই মমতার পাল্টা আঘাতে ক্ষতবিক্ষত বিজেপি শিবির।

সোমবার দুপুরে তৃণমূল ভবনে হাজির হয়ে ক্ষমতাসীন দলে যোগ দেয়ার কথা জানান বিজেপির যুব মোর্চার সভাপতি ও বিজেপির সাংসদ সৌমিত্র খাঁ-র স্ত্রী সুজাতা খাঁ।

তৃণমূলে যোগ দেয়ার পরপরই মোদি-অমিত শাহর সমালোচনা করে মমতা-অভিষেক বন্দনাও শোনা গেল তার মুখে, যা শুনে রীতিমতো হতবাক কট্টর বিজেপি বিরোধীরাও। যদিও এ ঘটনার পরই সুজাতার বিরুদ্ধে দল ভাঙার অভিযোগ তুলে বিয়েবিচ্ছেদের ঘোষণা দেন সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। একই সঙ্গে, মমতার বিরুদ্ধে কঠোর লড়াইয়ের ডাকও দেন তিনি।

এদিকে, পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক দলগুলোর কাছে আকুতি জানিয়েছেন অভিনেতা ও বিজেপি নেতা জয় বন্দ্যোপাধ্যায়ও।

আসন্ন বিধানসভা ভোটের আগে পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক দৃশ্যপটে আর কত রদবদল হবে তা দেখার অপেক্ষায় সব মহল।