বিয়ের অনুষ্ঠানে মাংস কম দেওয়ায় সংঘর্ষ, বরের চাচা নিহত

বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার চাঁদপাশা ইউনিয়নের দক্ষিণ রাফিয়াদী এলাকায় বৌভাত অনুষ্ঠানে মাংস কম দেওয়াকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের সংঘর্ষে বরের চাচা আজাহার মীর (৬৫) নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (৫ জানুয়ারি) বিকালে ওই সংঘর্ষে ৭ জন আহত হয়। ঘটনার পরপরই জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১২ জনকে আটক করেছে পুলিশ। আজাহার মীর একই এলাকার মৌজে আলী মীরের ছেলে।

বিয়ের অনুষ্ঠানে মাংস কম দেওয়ায় সংঘর্ষ, বরের চাচা নিহত
বিয়ের অনুষ্ঠানে মাংস কম দেওয়ায় সংঘর্ষ

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের এয়ারপোর্ট থানার ওসি জাহিদ-বিন আলম জানান, দক্ষিণ রফিয়াদী গ্রামের মোতাহার মীরের ছেলে সজীব মীর ২ দিন আগে বরিশাল নগরীর কাউনিয়া সাবান ফ্যাক্টরি এলাকার আবুল কালাম হাওলাদারের মেয়ে রুনা বেগমকে বিয়ে করেন। ওইদিন বরযাত্রা অনুষ্ঠানের মাধ্যমে রুনা বেগমকে বাবার বাড়ি থেকে শ্বশুরবাড়ি রাফিয়াদী নেওয়া হয়।

মঙ্গলবার বরের বাড়িতে বৌভাত অনুষ্ঠানে কনে পক্ষের ৪৮ জন অতিথি অংশে নেন। খাবারের এক পর্যায়ে মাংস কম দেওয়াকে কেন্দ্র করে অতিথিদের সঙ্গে বরপক্ষের লোকজনের বাদানুবাদ এবং হাতাহাতি হয়। পরবর্তীতে দুই পক্ষের হামলা সংঘর্ষের মধ্যে পড়ে বরের চাচা আজহার মীর আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে মারা হন।

এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কনে পক্ষের ১২জনকে আটক করা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরসহ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।