ব্রিসবেন দূর্গ চূর্ণ করে ভারতের ইতিহাস

‘টেস্ট ইজ বেস্ট’- ২২ গজের এই চিরন্তন বাণীটা আবারও প্রমাণিত হলো। সাদা পোশাকের ক্রিকেটও যে উত্তেজনায় ঠাসা ভারত-অস্ট্রেলিয়ার চতুর্থ টেস্টের শেষ দিনে সেটি আরও একবার দেখলো ক্রিকেট দুনিয়া।

ব্রিসবেন দূর্গ চূর্ণ করে ভারতের ইতিহাস

‘টেস্ট ইজ বেস্ট’- ২২ গজের এই চিরন্তন বাণীটা আবারও প্রমাণিত হলো। সাদা পোশাকের ক্রিকেটও যে উত্তেজনায় ঠাসা ভারত-অস্ট্রেলিয়ার চতুর্থ টেস্টের শেষ দিনে সেটি আরও একবার দেখলো ক্রিকেট দুনিয়া। অজিদের ‘পয়া’ খ্যাত ব্রিসবেনে ৩২ বছর পর পরাজয় নিয়ে মাঠ ছাড়লো স্বাগতিকরা। বিপরীতে গ্যালারিতে রোমাঞ্চ আর উত্তেজনা ছড়িয়ে ব্রিসবেন দূর্গ চূর্ণ করলো ভারত।

১৯৮৮ সালে ভিভ রিচার্ডসের ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে ব্রিসবেনে হেরেছিল অজিরা। এরপর এই ভেন্যুকে সৌভাগ্যের প্রতীক করে নিয়েছিল তারা। গত ৩২ বছরে সফরকারী কোনও দলই এখানে স্বাগতিকদের সামনে পাত্তা পায়নি। এবার ব্রিসবেন প্রাচীর ভেঙে উড়তে থাকা সেই অস্ট্রেলিয়াকে সোজা মাটিতে নামিয়ে আনলো ভারত। 

ইতিহাস এই শিক্ষাই দেয় যে, রেকর্ড ভেঙেই ইতিহাস গড়তে হয়। নিজেদের ইতিহাস গড়ার দিনে রেকর্ড ভাঙা জয়েই ব্রিসবেন ইসিহাস লিখলো ভারত। এই ভেন্যুতে চতুর্থ ইনিংসে সবচেয়ে বেশি রান করে জেলা দলটির নাম অস্ট্রেলিয়াই। ১৯৫১ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৭ উইকেটে ২৩৬ রান তুলে জিতেছিল স্বাগতিকরা। এ পরিসংখ্যানই বলে দিচ্ছে, প্রায় ৭০ বছর পর ভারতের সামনে ৩২৮ রানের লক্ষ্যটা কতটা কঠিন ছিল। কিন্তু সেই ‘কঠিনেরে ভালোবেসেই’ পঞ্চম দিনের পড়ন্ত বিকেলে ১৮ বল ও ৩ উইকেট হাতে রেখে ব্রিসবেনের বন্দরে বিজয়ের নোঙর ভেড়ালো ভারত।  

শুরুতে তরুণ তারকা শুভমান গিলের ৯১ রানে দুর্দান্ত এক ইনিংসের পর, অভিজ্ঞ চেতাশ্বর পূজারার ৫৬ ও একপ্রাপ্ত আগলে রেখে রিভাশ প্রান্তের হার না মানা ৮৯ রানের ইনিংসই ভারতকে জয়ের পথ দেখালো। চার ম্যাচ সিরিজের বোর্ডার-গাভাস্কার ট্রফিটা ২-১ ব্যবধানে জিতে ঊর্ধ্ব আকাশে তুলে ধরলো টিম ইন্ডিয়া। ট্রফি জয়ের দিনে গ্যালারির দর্শকদের সম্মান জানিয়ে জাতীয় পতাকা তুলে ধরে মাঠও প্রদক্ষিণ করেছে আজিঙ্কা রাহানের দল। 

মূলত প্রতিপক্ষের মনোবল ভাঙার জন্যই সফরকারীদের সঙ্গে সিরিজের প্রথম টেস্টটা এই ব্রিসবেনেই খেলে থাকে অস্ট্রেলিয়া। ২০১৭ সালে অ্যাশেজের সময় সাবেক ইংলিশ অধিনায়ক মাইকেল ভন বলেছিলেন, প্রতিপক্ষকে মানসিকভাবে বিধ্বস্ত করার জন্য সিরিজের প্রথম টেস্ট ব্রিসবেনে আয়োজন করে অস্ট্রেলিয়া।

তবে বছর দুই আগে ভারতের জোরাজোরিতে এ রীতি থেকে বেরিয়ে আসে অজিরা। ২০১৮ সালে ভারতের চাওয়া মতো অ্যাডিলেডে হয় সিরিজের প্রথম টেস্ট। সেই সিরিজে ব্রিসবেনে কোনও ম্যাচই হয়নি। পার্থ, মেলবোর্ন ও সিডনিতে হয় সিরিজের বাকি তিনটি টেস্ট। এবারও কদিন আগেই ভারতের ‘ব্রিসবেন ভীতি’ নিয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো খবরের শিরোনাম করে। ভারতও সিরিজের শেষ টেস্টটি ব্রিসবেনের বদলে খেলতে চেয়েছিল সিডনিতে। কিন্তু নাছোড়বান্দা অস্ট্রেলিয়ার সামনে ভারতের দাবি হালে পানি পায়নি। 

প্রথম ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার করা ৩৬৯ রানের জবাবে ৩৩৬ রানে গুটিয়ে যায় ভারত। তৃতীয় ইনিংসে অজিদের ২৯৪ রানে থামালে ইতিহাস গড়তে ভারতের লক্ষ্য দাঁড়ায় ৩২৮ রান। শেষ পযন্ত চতুর্থ ইনিংসে ৭০ বছরের রেকর্ড ভেঙে ৩২৯ রান তুলে ৩২ বছর পর ব্রিসবেন জয় করলো ভারত।