মন্দির থেকে প্রতিমার সোনার মুকুটসহ ২২ লাখ টাকার স্বর্ণ চুরি

বরিশালে একটি মন্দির থেকে প্রতিমার মাথার সোনার মুকুটসহ প্রায় ২২ ভরি স্বর্ণলংকার চুরির ঘটনা ঘটেছে। যার আনুমানিক মূল্য প্রায় ২২ লাখ টাকা বলে দাবি করছেন মন্দির কমিটি। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পরিমল ও উজ্জ্বল নামে দুই ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার (০১ ফেব্রুয়ারি) সকালে উজিরপুর উপজেলার শিকারপুরের উগ্রতারা কালি মন্দিরে এ ঘটনা ঘটে। মন্দির কমিটির […]

মন্দির থেকে প্রতিমার সোনার মুকুটসহ ২২ লাখ টাকার স্বর্ণ চুরি

বরিশালে একটি মন্দির থেকে প্রতিমার মাথার সোনার মুকুটসহ প্রায় ২২ ভরি স্বর্ণলংকার চুরির ঘটনা ঘটেছে। যার আনুমানিক মূল্য প্রায় ২২ লাখ টাকা বলে দাবি করছেন মন্দির কমিটি। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পরিমল ও উজ্জ্বল নামে দুই ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার (০১ ফেব্রুয়ারি) সকালে উজিরপুর উপজেলার শিকারপুরের উগ্রতারা কালি মন্দিরে এ ঘটনা ঘটে।

মন্দির কমিটির সহসভাপতি দেবাশীষ দাস জানান, সোমবার সকালে পূজারী সুশান্ত চক্রবর্তী মন্দিরের দরজা খুলে দেবী উগ্রতারার (কালি) মাথার সোনার মুকুট সহ অন্যান্য স্বর্ণালংকার দেখতে না পেয়ে উজিরপুর থানা পুলিশে খবর দেন।

সুশান্ত চক্রবর্তী জানান, রোববার (৩১ জানুয়ারি) রাতে দেবীর পূজা দিয়ে মন্দিরের প্রধান গেটে তালা লাগিয়ে বাড়ি যান তিনি। সোমবার সকালে গেট খুলে দেবীর শরীরের অলংকার দেখেন নি তিনি। খবর পেয়ে কমিটির নেতৃবৃন্দ এবং উজিরপুর থানার ওসি জিয়াউল আহসান ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখতে পান মন্দিরের কোন দরজা-জানালা ভাঙ্গা ছিল না। এমনকি মন্দিরে লাগানো সিসিটিভি ক্যামেরা চালু থাকলেও সেগুলো উল্টানো ছিল।

উজিরপুর থানার ওসি জিয়াউল আহসান জানান, ঘটনাটি পরিকল্পিত। সন্দেহজনক আচরণের কারনে মন্দিরের পশ্চিম পাশের বাসিন্দা পরিমল ও উজ্জ্বল নামে দুজনকে আটক করা হয়েছে। তারা চুরির সঙ্গে জড়িত বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্ততি চলছে বলে জানিয়েছেন মন্দির কমিটির সহসভাপতি দেবাশীষ দাস।