কোভিড-১৯ঃ মানবিক সহায়তা দিয়ে চলেছেন ইঞ্জিনিয়ারটিপু তরফদার

কোভিড-১৯র শুরু থেকে মানবিক সহায়তা দিয়ে চলেছেন দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনার বাসিন্দা বিশিষ্ট শিল্পপতি বিএনপি নেতা ইঞ্জিনিয়ার মখলেছুর রহমান টিপু দরফদার।

কোভিড-১৯ঃ মানবিক সহায়তা দিয়ে চলেছেন ইঞ্জিনিয়ারটিপু তরফদার
মানবিক সহায়তা দিয়ে চলেছেন ইঞ্জিনিয়ারটিপু তরফদার

২০২০ সালে বিশ্বের প্রায় দেশে করোনা ভাইরাস সংক্রামন দেখা দেয়।একই ভাবে বাংলাদেশে ও ছড়িয়ে পড়ে এই মারাতœক ভাইরাস। ভাইরাস মারাত্মক আকার ধারন করতে না পারে সে লক্ষে লকডাউন,মাস্ক ব্যবহার,সামাজিক দুরুত্ব বজায় রাখা সহ বিভিন্ন ধরনের দিক নির্দেশনা দেওয়া হয়।এসময় লকডাউনের কারনে অনেক মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়ে।ঐ সময় তিনি  চুয়াডাঙ্গা-২ নির্বাচনি এলাকায় ১৬হাজার মানুষের মাঝে ত্রান বিতরন করেন।এপর তিনি প্রায় এক হাজার আক্রন্ত পরিবারের মানবিক সহায়তা দিয়ে আসছেন।এছাড়াও তিনি জেলার দামুড়হুদা, জীবননগর ও মহেশপুর ও কোটচাদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে হাইফ্লো অক্সিজেন প্লান্ট সুবিধা দেওয়া হয়েছে। প্রতি অক্সিজেন  সিলিন্ডারে ৯.৮ লিটার অক্সিজেন রয়েছে। এছাড়াও চারটি কমপ্লেক্সে প্রতিটিতে ১২টি বেড ও দুটি করে কেবিন স্থাপন করা হয়েছে। যাতে ১৪জন করে রোগীর একসাথে চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব হবে। এতে করে সব মিলিয়ে তিনি প্রায় দেড় কোটি টাকার সহায়তা দিয়েছেন যা অব্যহত রয়েছে। 


এ বিষয়ে ইঞ্জিনিয়ার মখলেছুর রহমান টিপু দরফদার বলেন,করোনার শুরু থেকে সাধারন মানুষের পাশে দাড়ানো হয়েছে। এখন আক্রান্ত পরিবার গুলোকে পরিবারের সদস্য অনুপাতে সহায়তা দেওয়া হচ্ছে করোনা থাকা পর্যন্ত এটা অব্যাহত থাকবে।  
মানবিক সহায়তা প্রদানকারীর সমন্বয়কারী দামুড়হুদা উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারন সম্পাদক বিএনপি নেতা জহুরুল হক জানান, ২০২০সালে ২০শে মার্চ থেকে কর্মহীন  ১৬হাজার মানুষের মাঝে ১০ কেজি চাল ও ১০ কেজি আলু ত্রাণ হিসাবে দেওয়া হয়েছে। চুয়াডাঙ্গা-২নির্বাচনি এলাকার দামুড়হুদা জীবননগর ও চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার করোনায় আক্রান্ত প্রায় একহাজার পরিবারের ৩০ কেজি চাল ১০ কেজি আলু থেকে পরিবারের সদস্য অনুপাতে ১শ’ কেজি চাউল,৩০থেকে ৫০ কেজি আলু, ও ২হাজার থেকে ৮হাজার পর্যন্ত নগদ টাকা সহায়তা দেওয়া হয়েছে। আজ সোমবার কার্পাসডাঙ্গা মিশন পাড়ায় এক আক্রান্ত ব্যক্তির মানবিক সহায়তা দেওয়া হয়েছে। তার এ কাজে সহায়তা করছেন, বিএপি নেতা আবু সালে,ইছাহাক আলি,জাকির হোসেন,এরশাদ আলি,সহিদুল ইসলাম,নজরুল ইসলাম প্রমুম।এই সহায়তা করোনা থাকাকালীন এই সহায়তা অব্যাহত থাকবে বলে তিনি জানান।