মিয়ানমারে বিক্ষোভ জোরদার, আটক ৫০০

মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থান বিরোধী বিক্ষোভে যোগ দেওয়ায় এ পর্যন্ত গ্রেপ্তার হয়েছেন প্রায় পাঁচশ মানুষ। এছাড়া সরকারি দপ্তরগুলোতে চলা ধর্মঘট উৎসাহিত করায় ছয় জনপ্রিয় ব্যক্তির বিরুদ্ধে ...

মিয়ানমারে বিক্ষোভ জোরদার, আটক ৫০০
মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থান বিরোধী বিক্ষোভে যোগ দেওয়ায় এ পর্যন্ত গ্রেপ্তার হয়েছেন প্রায় পাঁচশ মানুষ। এছাড়া সরকারি দপ্তরগুলোতে চলা ধর্মঘট উৎসাহিত করায় ছয় জনপ্রিয় ব্যক্তির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে সামরিক জান্তা। ‘আইন অমান্য’ আন্দোলন নামের ওই ধর্মঘটে দেশটির বহু সরকারি দপ্তর অচল হয়ে পড়েছে বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে।

বুধবার রাতে সেনাবাহিনী ছয় জনপ্রিয় ব্যক্তির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে। তাদের বিরুদ্ধে সরকারি কর্মচারীদের আইন অমান্য আন্দোলনে যোগ দিতে উৎসাহিত করার অভিযোগ আনা হয়েছে। এই ছয় জন দেশটির জনপ্রিয় চলচ্চিত্র নির্মাতা, অভিনেতা ও সঙ্গীত শিল্পী।

এসব অভিযোগের কারণে তাদের দুই বছর কারাদণ্ড হতে পারে। তবে তাদের মধ্যে কয়েকজন বেশ বেপরোয়া বলে রয়টার্স জানিয়েছে। এছাড়া সামরিক অভ্যুত্থান বিরোধী এসব ধর্মঘট ও প্রতিবাদে অংশ নেওয়ার কারণে এ পর্যন্ত প্রায় ৫০০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী।

বৃহস্পতিবার সকালে বৃহত্তম শহর ইয়াঙ্গুনের প্রধান বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে একটি চৌরাস্তার মোড়ে কয়েক ডজন প্রতিবাদকারী অভ্যুত্থান বিরোধী বিক্ষোভ শুরু করলে পুলিশ তাতে বাধা দেয়। তাদের ব্যস্ত ওই এলাকা ছেড়ে চলে যাওয়ার নির্দেশ দেয় পুলিশ। প্রতিবাদকারী এসব শিক্ষার্থীরা দিনের পরবর্তী সময় শহরের অন্য জায়গায় ফের জড়ো হওয়ার পরিকল্পনা করেছেন।   

এর আগে বুধবার রাতে দেশটির দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর মান্দালয়ে ‘আইন অমান্য’ আন্দোলনে অংশ নেওয়া রেলওয়ে কর্মীদের লক্ষ্য করে পুলিশ গুলি ছুড়েছে। রেলওয়ের এই কর্মীরা কয়েকটি ট্রেন আটকে দিলে পুলিশ বাধা দেয়, এই নিয়ে দু’পক্ষের মুখোমুখি অবস্থানে এক পর্যায়ে পুলিশ গুলি করে। এতে একজন আহত হয়েছেন বলে স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন।

১ ফেব্রুয়ারির সামরিক অভ্যুত্থান ও নির্বাচিত নেত্রী অং সান সু চিকে আটক করার পর থেকে এদিন মিয়ানমারজুড়ে অন্যতম বৃহত্তম প্রতিবাদ হয়েছে। দেশজুড়ে সড়কগুলোতে অবস্থান নেয়া মানুষের সংখ্যা লাখ ছাড়িয়ে যায়।  

পূর্ববতী জান্তা সরকারগুলো শক্তি প্রয়োগের মাধ্যমে রক্ত ঝড়িয়ে বিক্ষোভ দমন করলেও এবার এখনও পর্যন্ত প্রতিবাদগুলো মোটামুটি শান্তিপূর্ণই আছে। কিন্তু এসব বিক্ষোভ ও আইন অমান্য আন্দোলনের কারণে বহু দপ্তরের কার্যক্রম স্থবির হয়ে পড়ছে।

“আমাদের জনগণের এই একতা দেখে খুব ভালো লাগছে। জনগণের ক্ষমতা জনগণের কাছেই ফিরে আসবে,” নিজের ফেইসবুক পোস্টে লিখেছেন অভিনেতা লু মিন।

ধর্মঘটী সরকারি কর্মচারীদের কাজে ফেরার আহ্বান জানিয়েছে জান্তা, অন্যথায় তাদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওযা হবে বলে হুমকি দিয়েছে; কিন্তু তা সত্ত্বেও ধর্মঘট শিথিল হওয়ার কোনো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না।

ব্রেকিংনিউজ/এম