রাত পোহালেই দর্শনা পৌর নির্বাচন: সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন

আগামীকাল অনুষ্ঠিত হবে চুয়াডাঙ্গার দর্শনা পৌরসভার সাধারণ নির্বাচন। এ উপলক্ষে শুক্রবার বিকেল থেকে নির্বাচনী এলাকার ৯টি ওর্য়াডে ১৬ টি কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে ভোটের সরঞ্জাম।

রাত পোহালেই দর্শনা পৌর  নির্বাচন: সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন
রাত পোহালেই দর্শনা পৌর নির্বাচন

গতকাল বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে শেষ হয়েছে প্রার্থীদের প্রচার প্রচারণা।  চুয়াডাঙ্গার দর্শনা পৌরসভায় গোপন ব্যালটের মাধ্যমেই ভোট গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা।  
জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, দর্শনা পৌরসভায় মোট ভোটারের সংখ্যা ২৭ হাজার ৫১৭ জন। এদের মধ্যে পুরুষ ভোটার ১৩ হাজার ৫৭১ ও নারী ভোটার ১৩ হাজার ৯৪৬ জন।  এবারের নির্বাচনে ৯টি ওয়ার্ডে ১৬ টি ভোটকেন্দ্রে ৮২টি বুথে গোপন ব্যালোটের মাধ্যমে ভোট গ্রহণ করা হবে।  ভোট কেন্দ্র ও এর আশপাশে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।  কোনো প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে থাকছে পুলিশের একাধিক বিশেষ টিম।

 নির্বাচনকে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ করতে স্থানীয় প্রশাসনকে সর্বোচ্চ সতর্কতায় রাখা হয়েছে বলে জানান চুয়াডাঙ্গা জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা তারেক আহমেমদ।  তিনি জানান, নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু করতে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।  গুরুত্বপূর্ণ ও অতিগুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রগুলোতে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।  ভোট গ্রহণের কিছুক্ষণ আগে ব্যালেট পেপার নেয়া হবে ভোটকেন্দ্রে।  ভোটগ্রহণ শুরু হবে সকাল ৮টা থেকে।  বিরতিহীনভাবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ করা হবে।  শান্তিপূর্ণ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের লক্ষ্যে ও আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ৯টি ওয়ার্ডে ৯ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হবে।

ভোট কেন্দ্রগুলোতে থাকবে পুলিশ ও আনসার বাহিনীর সদস্যরা।মাঠপর্যায়ে সার্বক্ষণিক মহড়া দিতে থাকছে ৩ প্লাটুন বিজিবি ও ২ প্লাটুন র‌্যাব।  এছাড়া দর্শনা অডিটোরিয়াম কাম কমিউনিটি সেন্টার নির্বাচনী কনট্রোল রুম হিসেবে ব্যবহার করা হবে। সেখান থেকেই নির্বাচনী ফলাফল ঘোষণা করা হবে।   
নির্বাচনে মেয়র পদে ৩ জন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর মধ্যে দর্শনা পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিয়ার রহমান নৌকা, সাবেক ছাত্রনেতা হাবিবুর রহমান ধানের শীষ এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মোবাইলফোন প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন জামায়াত নেতা আশকার আলী।  এছাড়া সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ৮ এবং সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩৯ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন।