লিটনের হাফসেঞ্চুরির পরই মুমিনুলের সেঞ্চুরি

চট্টগ্রাম টেস্টের ৪র্থ দিনে দুর্দান্ত খেলে যাচ্ছেন অধিনায়ক মুমিনুল হক ও লিটন দাস। রাহকিম-ওয়ারিক্যানের কোনো ঘূর্ণিঝড়ই উপড়ে ফেলতে পারছে না তাদের। জুটি ভাঙতে এর মাঝে লেগব্রেক বোলার বোনারকে দিয়েও ২ ওভার করান ক্যারিবীয় অধিনায়ক ব্রাথওয়াইট। পেসার কেমার রোচকে এনেছিলেন ফাঁকে দিয়ে। কোনো অস্ত্রই নোয়াতে পারেনি মুমিনুল-লিটন জুটিকে।

লিটনের হাফসেঞ্চুরির পরই মুমিনুলের সেঞ্চুরি

চট্টগ্রাম টেস্টের ৪র্থ দিনে দুর্দান্ত খেলে যাচ্ছেন অধিনায়ক মুমিনুল হক ও লিটন দাস। রাহকিম-ওয়ারিক্যানের কোনো ঘূর্ণিঝড়ই উপড়ে ফেলতে পারছে না তাদের।

জুটি ভাঙতে এর মাঝে লেগব্রেক বোলার বোনারকে দিয়েও ২ ওভার করান ক্যারিবীয় অধিনায়ক ব্রাথওয়াইট। পেসার কেমার রোচকে এনেছিলেন ফাঁকে দিয়ে।

কোনো অস্ত্রই নোয়াতে পারেনি মুমিনুল-লিটন জুটিকে। এরইমধ্যে টেস্ট ক্যারিয়ারে ৬ষ্ঠ হাফসেঞ্চুরি তুলে নিলেন লিটন। ৯৬ বলে ফিফটি করেন লিটন।

লিটনের হাফসেঞ্চুরি উদযাপনের রেশ কাটতে না কাটতেই সেঞ্চুরি করেন অধিনায়ক মুমিনুল।

৮৪ বলে করা হাফসেঞ্চুরিকে টেনে সেঞ্চুরিতে নিয়ে গেলেন তিনি।

টেস্ট ক্যারিয়ারে ১০ম শতক হাঁকালেন বাংলাদেশের সাদা জার্সির অধিনায়ক। অর্থাৎ দ্বিতীয় অর্ধশতক তুলে নিতে ৮৬ বল খরচ করেছেন মুমিনুল। ১৭২ বল খেলে ৯ বাউন্ডারিতে এ সেঞ্চুরি সাজিয়েছেন মুমিনুল। জহুর আহমেদ স্টেডিয়ামে ১০ টেস্ট খেলে ৭টি সেঞ্চুরি হয়ে গেল মুমিনুলের।

পঞ্চম উইকেটে লিটনের সঙ্গে ইতিমধ্যে ১১৩ রানের জুটি গড়েছেন মুমিনুল। মুমিনুল-লিটনে ভর করে ৩৫৭ রানের লিড ছাড়িয়েছে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংসে সামনে থেকেই নেতৃত্ব দিয়ে যাচ্ছেন মুমিনুল হক। অধিনায়কোচিত ইনিংস খেলছেন তিনি। গতকাল ১ রানে ২ উইকেট হারানোর পর মুমিনুলকে যোগ সঙ্গ দিতে পারেননি মুশফিকও।

৪র্থ দিনের প্রথম সেশনে রাহকিমের ঘূর্ণিবলে পরাস্ত হয়ে মাত্র ১৮ রানে বিদায় নেন মি. ডিপেন্ডেবল। এরপর লিটন দাসকে সঙ্গী করে দুর্দান্তভাবে এগিয়ে যাচ্ছেন মুমিনুল।