লাশের পাশেই বসে ছিলো ঘাতক

পরকীয়ার জের ধরে শাশুড়ি ও স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৫ টায় কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার মোকাম ইউনিয়নের হালগাও গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ঘাতক লোকমান হোসেন ...

লাশের পাশেই বসে ছিলো ঘাতক

পরকীয়ার জের ধরে শাশুড়ি ও স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৫ টায় কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার মোকাম ইউনিয়নের হালগাও গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ঘাতক লোকমান হোসেন (৩৫) ওই এলাকার মৃত আলম মিয়ার ছেলে। 

স্থানীয়রা জানান, লোকমান হোসেন মাদকাসক্ত, তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে হঠাৎ করেই উত্তেজিত হয়ে স্ত্রী ফারজানা আক্তার (২৫) ও শ্বাশুড়ি বানু বিবি (৫০) কে ছুরিকাঘাত করে। এতে ঘটনাস্থলেই তারা মা-মেয়ে মারা যান। খুনের পর লোকমান লাশের পাশেই বসে ছিলো। 

তবে লোকমান জানান, তার স্ত্রী ফারজানা আক্তার পরকীয়ার আসক্ত। বিষয়টি সমাধানের জন্য পাশ্ববর্তী কালির বাজার ইউনিয়নের বল্লবপুর গ্রাম থেকে সকালে তার শাশুড়ি বানু বিবিকে খবর দিয়ে তার বাড়িতে নিয়ে আসে। মঙ্গলবার সন্ধ্যার আগে স্ত্রীর পরকীয়ার বিষয়টি তার শাশুড়িকে সমাধান না করে উল্টো জামাতে গালমন্দ করে। লোকমানকে দোষী সাব্যস্ত করে। এত উত্তেজিত হয়ে লোকমান ছুরি দিয়ে শাশুড়ি ও তার স্ত্রীকে হত্যা করে।
  
স্থানীয়রা জানান, লোকমান পেশায় রিকশা চালক। ফারজানার এক ছেলে এক মেয়ে রয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে লোকমানকে গ্রেফতার করে।
 
বিষয়টি নিয়ে বুড়িচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মোজাম্মেল হক জানান, আমরা ঘটনাস্থলে আছি।এ বিষয়ে বিস্তারিত পরে জানানো হবে।