হরতালে পুলিশের ব্যাপক লাঠিচার্জ, রাস্তায় বসে পড়লেন কাদের মির্জা

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে সেতুমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জার ডাকে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল চলছে।  শনিবার (২০ ...

হরতালে পুলিশের ব্যাপক লাঠিচার্জ, রাস্তায় বসে পড়লেন কাদের মির্জা
নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে সেতুমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জার ডাকে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল চলছে। 

শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ৭টার দিকে কাদের মির্জার নেতৃত্বে হরতালের সমর্থনে বের হওয়া একটি মিছিলে পুলিশ লাঠিচার্জ করে। এতে বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হয়েছে কাদের মির্জার পক্ষ থেকে জানানো হয়। হরতালের সমর্থনে সকাল থেকেই তার সমর্থকেরা বিছিন্নভাবে বিভিন্ন এলাকায় পিকেটিং করছেন। 

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, শনিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে কাদের মির্জার নেতৃত্বে তার অনুসারীরা লাঠিসোঁটা নিয়ে হরতালের সমর্থনে মিছিল বের করে। মিছিলটি বসুরহাট রুপালি চত্বর থেকে কোম্পানীগঞ্জ থানার দিকে যায়। এসময় থানার সামনে অবস্থানকারী পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে বাকবিতণ্ড হয় কাদের মির্জার। 

একপর্যায়ে পুলিশ মিছিলটির গতিরোধ করে এবং পেছন থেকে ধাওয়া দেয় পুলিশ, লাঠিচার্জও করা হয়। মিছিলকারীরা ছত্রভঙ্গ হয়ে ছড়িয়ে গেলেও কাদের মির্জা সড়কের ওপর অনেকক্ষণ বসে থাকেন। পরে দলীয় ও পরিবারের লোকজন তাকে সেখান থেকে পৌরসভা কার্যালয়ে নিয়ে যান।

এদিকে কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহেদুল হক সকালে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, কাদের মির্জার লোকজন লাঠিসোঁটা নিয়ে হরতালের সমর্থনে থানার দিকে হামলা করতে আসে। থানার সামনে অবস্থানকারী পুলিশের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে কাদের মির্জা অশালীন উক্তি ও মারমুখি আচরণ করেন। একপর্যায়ে তারা থানার ভেতর ঢুকে পড়তে উদ্যত হলে পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করে। সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

এর আগে গতকাল শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত টানা দ্বিতীয় দিনের মতো দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানার সামনে অবস্থান ধর্মঘট পালন করেন কাদের মির্জা।

নোয়াখালী জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার ও কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি), ওসি (তদন্ত)কে প্রত্যাহারের দাবিতে এবং নোয়াখালীতে অপরাজনীতি বন্ধের দাবিতে কাদের মির্জার এ লাগাতার কর্মসূচি চলছে।

ব্রেকিংনিউজ/এমআর