দৌলতপুরে পদ্মা নদীতে ডুবে গৃহবধু নিখোঁজ

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে পদ্মা নদীতে ডুবে তানজেলা খাতুন (২৮) নামে এক গৃহবধু নিখোঁজ হয়েছে। উপজেলার ফিলিপনগর ইউনিয়নের ইসলামপুর হাইস্কুলের পূর্ব পার্শে পদ্মা নদীতে ডুবে ওই গৃহবধু নিখোঁজ হয়। সে ইসলামপুর গ্রামের আজের প্রামানিকের মেয়ে এবং ভেড়ামারা কাঠেরপুল এলাকার নয়ন আলীর স্ত্রী। তানজেলা খাতুন মানষিক রোগী ছিল বলে এলাকাবাসী জানিয়েছে।

দৌলতপুরে পদ্মা নদীতে ডুবে গৃহবধু নিখোঁজ

স্থানীরা জানায়, শনিবার ভোররাত ৪টার দিকে ৫বছরের  শিশু কন্যা আয়েশা খাতুনকে সঙ্গে নিয়ে দুই সন্তানের জননী তানজেলা খাতুন আত্মহত্যার উদ্দেশ্যে পদ্মা নদীতে নামে। এসময় নদীতে মাছ ধরা জেলেরা তাকে দেখতে পেয়ে শিশুকন্যা আয়েশাকে জীবিত উদ্ধার করলেও গৃহবধু তানজেলা খাতুন পানিতে তলিয়ে নিখোঁজ হয়। পরে জেলে ও স্থানীয়রা পদ্মা নদীতে তল্লাশী চালিয়ে নিখোঁজ গৃহবধুর সন্ধান পাইনি।
নিখোঁজ গৃহহবধুর প্রতিবেশী ও ফিলিপনগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহঃ শিক্ষক শাহেদ রনি জানান, শিশুকন্যা আয়েশাকে সঙ্গে নিয়ে মানষিক রোগী তানজেলা খাতুন আত্মহত্যার উদ্দেশ্যে ভোররাতে পদ্মা নদীতে নেমে পানিতে তলিয়ে যায়। এসময় তার কাঁধে থাকা শিশুকন্যাকে জেলেরা জীবিত উদ্ধার করলেও তানজেলাকে উদ্ধার করতে পারেনি। সে পদ্মা নদীর ¯্রােতে পানিতে তলিয়ে যায়। তিনি জানান, মানষিক রোগী তানজেলা শুক্রবার নদীতে নেমে আত্মহত্যার চেষ্টা করলে এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে। এরআগেও সে আত্মহত্যার চেষ্টা করে না পারায় শনিবার ভোররাতে পরিবারের লোকজন ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় শিশুকন্যাকে সঙ্গে নিয়ে সে পদ্মা নদীতে নেমে তলিয়ে যায়। ভাগ্যক্রমে শিশুটি জীবিত উদ্ধার হয়।
শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত নিখোঁজ গৃহবধু তানজেলা খাতুনকে উদ্ধারে ডুবুরি দলকে খবর দেওয়া হয়েছে। তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ডুবুরি দল ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছায়নি বলে স্থানীয়রা জানিয়েছে।