ওরা ১১ জন !

না এটা কোন সিনেমা নয়। আসন্ন ইউপি নির্বাচনে মেহেরপুরের গাংনীর রাইপুর ইউপির হেমায়েতপুর গ্রামে চেয়ারম্যান ও মেম্বর পদে ১১ প্রার্থী ভোট যুদ্ধে অংশ নিবেন। এদের মধ্যে চেয়ারম্যান একজন, সংরক্ষিত মহিলা মেম্বর দু’জন এবং ৮ জন সাধারণ। একই গ্রামে ১১ প্রার্থী হওয়ায় সর্বত্র আলোচনা সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

 

স্থানীয়রা জানান, হেমায়েতপুর ও রুয়েরকান্দি গ্রামের একাংশ নিয়ে রাইপুর ইউপির ৭নং ওয়ার্ড। এ ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা ১৩৯৭। গেল নির্বাচনে দু’জন প্রার্থী ভোটযুদ্ধে অংশ নিয়েছিলেন। বিজয়ী হয়েছিলেন আনারুল। এবার সাধারণ সদস্য পদে লড়ছেন ৮জন। এরা হলেন, বর্তমান মেম্বর আনারুল ইসলাম, ইয়ামিন কসাই, আওয়াল, মুন্তাজ আলী, সাবেক মেম্বর ফারুক হোসেন, বেল্টু মিয়া, শরিফুল ইসলাম ও সাবেক মেম্বর আব্দুল মান্নান।

 

তাছাড়া মহিলা মেম্বর পদে রয়েছেন সাবেক মেম্বর ইসমত আরা ও জুলেখা খাতুন। গত এক বছর যাবত যাবত সকলেই প্রচার প্রচারণা চালিয়ে অবশেষে সকলেই ভোটযুদ্ধে অংশ নিচ্ছেন।

 

প্রার্থীরা সকলেই নিজেকে যোগ্য এবং বিজয়ী হবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করছেন। সেই সাথে দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রæতি। প্রার্থী আনারুল ইসলাম জানান, তিনি নির্বাচিত হয়ে তার ওয়ার্ডে অনেক উন্নয়নের কাজ করেছেন। বিধবা ও বয়ষ্ক ভাতা, ভিজিডি, ভিজিএফ কার্ডসহ নানা ধরণের সুবিধা দিয়েছেন ওয়ার্ডবাসীকে।

 

সেহেতু তিনিই বিজয়ী হবেন বলে প্রত্যাশা করছেন।এদিকে প্রার্থীরা ভোটারদের কাছে গিয়েও একে অপরের নানা দোষত্রুটি তুলে ধরছেন। ভোটারদের সন্তুষ্ট করতে চায়ের দোকানে বিভিন্ন ধরণের আপ্যায়ন করছেন। সুন্নাতে খাৎনা থেকে শুরু করে দাফন কাফন অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণ করছেন প্রার্থীরা। অনেকেই কন্যা দ্বায়গ্রস্ত পিতার কাছেও সহমর্মিতা প্রকাশ করছেন। নির্বাচনের আগ পর্যন্ত প্রাথীরা এমন সামাজিকতা ও নম্র ব্যাবহার দেখালেও নির্বাচনের পর সকলেরই চরিত্রের পরিবর্তন ঘটে।