দামুড়হুদায় আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর চাপে দলীয় প্রার্থী

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় দ্বিতীয় ধাপে ১১নভেম্বর চাঁর টি ইউনিয়নে নির্বাচন। নির্বাচনে দামুড়হুদা সদর ও কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়নে একাধিক আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী থাকায় চাপে রয়েছে দলীয় মনোনিত প্রার্থীরা।

 

এই চার ইউনিয়নের মধ্যে কুড়ুলগাছি ও জুড়ানপুর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের কোন বিদ্রোহী প্রার্থী না থাকলেও সদর ইউনিয়ন ও কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়নে রয়েছে একাধীক প্রার্থী।দামুহুদা সদর ইউনিয়নে এই নির্বাচনে আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থী হয়েছেন, উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি হযরত আলি। জামায়াত সমর্থীত (সতন্ত্র) প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান শরিফুল আলম মিল্টন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ আব্দুর রাজ্জাক রাজী ও উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি (বিদ্রোহী) প্রার্থী হাজি আব্দুল কাদির।

 

কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান ভুট্টু আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থী হয়েছেন। আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রয়েছেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুল করিম বিশ্বাস,উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি সহিদুল ইসলাম রয়েছেন বিদ্রোহী প্রার্থী। ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর প্রার্থী রয়েছে আব্দুল কাদির।

 

কুড়ুলগাছি ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগ নেতা শাহা এনামুল করিম তার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেওয়ায় বর্তমানে ৪জন প্রার্থী প্রতিদন্দীতা করছেন, আওয়ামীলীগের মনোনিত প্রার্থী কাফি উদ্দীন টুটুল,জামায়াত সমর্থীত স্বতন্ত্র প্রার্থী সরফরাজ উদ্দীন স্বতন্ত্র প্রার্থী কামাল উদ্দীন ও ইসলামি আন্দোলন ,বাংলাদেশ এর আক্তারুজ্জামান।

 

জুড়ানপুর ইউনিয়রে আওয়ামীলীগের মনোনিত প্রার্থী উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন-সম্পাদক বর্তমান চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন,জাকেরপাটির মোনাজাত হোসেন, ইসলামি আন্দোলন ,বাংলাদেশ এর সজিব মাহামুদ ও বিএনপি সমর্থীত স্বতন্ত্র প্রার্থী রুহুল আমিন।

 

তবে কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়নে একাধিক বিদ্রোহী প্রার্থী থাকায় চাপে আছে আওয়ামীলীগের মনোনিত প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান ভুট্টু।ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুল করিম বিশ্বাস ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি সহিদুল ইসলাম দলীয় বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন।

 

তবে স্থানীয় অধিকাংশ নেতাকর্মী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভপতি করিম বিশ্বাসের দিকে ঝুকে পড়ায় সে অনেক ভালো অবস্থানে রয়েছে। অপর দিকে দামুড়হুদা সদর ইউনিয়নে একই অবস্থা এই ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়েছে উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি হাজি আব্দুল কাদির তার সাথে রয়েছে বেশ কিছু স্থানীয় দলীয় নেতা কর্মী। ফলে দলীয় ভোট ভাগাভাগি হয়ে যাওয়ার চাপে রয়েছে দলীয় মনোনিত প্রার্থী।