দামুড়হুদায় কৃষি মন্ত্রনালয়ের প্রধান উপদেষ্টার পেরিলার ক্ষেত পরিদর্শন

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় উচ্চফলনশীল ভোজ্যতেল ফসল পেরিলার পরীক্ষামূলক ক্ষেত পরিদর্শন করলেন কৃষি মন্ত্রনালয়ের প্রধান উপদেষ্টা হামিদুর রহমান ও গবেষক অব্দুল কাইউম। রোববার দুপুরে উপজেলার নাস্তিপুর মাঠের এই ক্ষেত পরিদর্শন ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

 

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারন অফিসার মাসুম আব্দুল্লার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথী ছিলেন, কৃষি মন্ত্রনালয়ের প্রধান উপদেষ্টা হামিদুর রহমান। বিশেষ অতিথী ছিলেন, ছিলেন শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ডক্তরেট ডিগ্রি অর্জনের জন্য গবেষনাকারী কৃষি অফিসার কৃষিবিধ আব্দুল কাইউম।অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন দামুড়হুদা উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিধ মনিরুজ্জামান।

 

কৃষি অফিসার মনিরুজ্জামন জানান, দামুড়হুদা উপজেলায় নতুন ফসল পেরিলার পরীক্ষামূলক চাষ শুরু করা হয়েছে। উপজেলা কৃষি অফিসের সহায়তায় লোকনাথপুর, দর্শনা, মদনা ও কার্পাসডাঙ্গায় প্রাথমিকভাবে কয়েকজন কৃষক পরীক্ষামূলকভাবে এই চাষ করছেন।রোববার দুপুরে কৃষি মন্ত্রনালয়ের প্রধান উপদেষ্টা হামিদুর রহমান ও গবেষক আব্দুল কাইউম এই পরিক্ষামুলক ক্ষেত পরিদর্শন করেন।

 

গবেষক আব্দুল কাইউম বলেন, এটি আমাদের দেশে একটি নতুন ফসল। এটি সাধারনত কোরিয়া, জাপান, ভিয়েতনাম,ভারত ও থাইল্যান্ডসহ বিভিন্ন দেশে পেরিলা চাষ হয়ে থাকে। প্রথমবারের মতো আমাদের দেশে পরীক্ষামূলক চাষ শুরু করা হয়েছে। এই ফসল সাধারনত উচু জমিতে ভালো হয়। পেরিলা থেকে উৎপাদিত তেলের দামও ভালো। এই তেল ২হাজার থেকে ২১০০ টাকা কেজি দরে এর তেল বিক্রি হয়ে থাকে। ফলনও ভালো, বিঘাপ্রতি ৮ থেকে ৯ মণ ফসল মেলে।জুন-জুলাই মাস রোপনের উপযুক্ত সময়। রোপা আউশ ও পাট কাটার পর পতিত জমি অথবা চারা বাগানে এটা রোপন করা যায়।৯০ দিনের ফসল হলেও বীজতলা থেকে চারা তৈরি করে রোপনের ৬০ দিনের মধ্যে উঠে যায়। এসময় সাধারণত কম-বেশি বৃষ্টি হয়ে থাকে। তাই সেচ তেমন একটা লাগে না। সামান্য সার ও ছত্রাকনাশক ব্যবহার করতে হয়।

 

প্রধান অতিথী কৃষি মন্ত্রনালয়ের প্রধান উপদেষ্টা হামিদুর রহমান,বলেন,আমাদের দেশে ভোজ্য তেলের ব্যপক চাহিদা রয়েছে। প্রতি বছর বিদেশ থেকে প্রায় ১৫হাজার কোটি টাকার তেল আমদানী করা হয়ে থাকে। পেরিলার শতকরা ৬৫ ভাগেই মেলে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড। এর তেল আমাদের শরীরের জন্য বেশ উপকারী। বিশেষ করে হৃদযন্ত্র, মস্তিস্ক ও ত্বকসহ ডায়াবেটিস রোগে এটি খুবই কার্যকর ভূমিকা পালন করে।পেরিলার তেল স্বাস্থ্যসম্মত। এর পাতা সবজি হিসেবে খাওয়া যায়। এতে সরিষা বা অন্যান্য তেলে ইউরেসিক অ্যাসিড থাকলেও এই তেলে তা নেই। এই চাষে সফল হলে বাজার দর ভালো হওয়ায় কৃষকারা যেমন লভবান হবে। এতে এলাকায় তেলের চাহিদা কিছুটা হলে কুমে আসবে। তেমনি বিদেশি নির্ভরতা কিছুটা হলে ও কুমবে।এর আগে ক্ষেত পরিদর্শন করেন অতিথীবৃন্দরা।