মোংলায় ৪০ লক্ষ টাকা মুল্যের চোরাই মালামালসহ চোরাকারবারি আটক

মোংলা বন্দরের পশুর নদীর কানাইনগর এলাকা থেকে ৪০ লক্ষ ২৫ হাজার টাকা মূল্যের চোরাই মালামালসহ এক পাচারকারীকে আটক করেছে কোস্টগার্ড। মোংলা বন্দরে অবস্থানরত বানিজ্যিক জাহাজ থেকে পাচার করে আনা ২টি কাঠের নৌকা বোঝাই করা এস এস পাইপসহ ওইসব মালামাল গোপন সংবাদের রবিবার (০৭ নভেম্বর) দুপুরে জব্দ করে কোস্টগার্ড।

 

এসময় পাচারের সাথে জড়িত রবিউল নামক এক চোরাকারবারীকে আটক করে কোস্টগার্ড সদস্যরা।কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের কর্মকর্তা লেঃ কমার্ন্ডার হাসানুজ্জামান এতথ্য নিশ্চিত করে জানান,

 

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে কানাইনগর এলাকা সংলগ্ন পশুর নদী থেকে ২টি কাঠের নৌকাসহ ২৩ টি এসএস পাইপ জব্দ করা হয়েছে। প্রতিটি পাইপের দৈঘর্য ২০ ফুট। ৩৫০ কেজি ওজনের ওই পাইপের আনুমানিক মূল্য হবে ৪০ লক্ষ ২৫ হাজার টাকা। এসময় পাচারের সাথে জড়িত  মোংলার জয়মনি এলাকার বাসিন্ধা মোঃ জাহাঙ্গীরের ছেলে রবিউল(২৭)কে আটক করা হয়। জব্দকৃত মালামাল ও আটক চোরাকারবারীকে পরবর্তী আইনানুক ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য মোংলা থানায় হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান,কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের এ কর্মকর্তা।

 

এদিকে নাম প্রকাশ না করা শর্তে কানাইনগর এলাকার কয়েকজন বাসিন্ধা জানান,মোংলা উপজেলার কানাইনগরের বাইদ্দাপাড়া এলাকায় কয়েকটি চোরাই সিন্ডিকেট চক্র রয়েছে। যারা প্রতিনিয়ত বন্দরে বানিজ্যিক জাহাজ থেকে বিভিন্ন মালামাল চুরি-ডাকাতির সাথে জড়িত।প্রভাবশালী ওইসব সিন্ডিকেট চক্র প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের দূণীতিবাজ কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে দির্ঘ দিন তাদের ওইসব কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে। স্থানীয়রা প্রানের ভয়ে তাদের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে পারছেননা্ বলে জানায় তারা।