শার্শায় ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় আহতের ১৭ দিন পর ১জনের মৃত্য

যশোরের শার্শার গোগায় ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে হামলায় আহত হওয়ার ঘটনার ১৭ দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে মারা গেছেন হোসেন আলী(৫৩) নামে এক ব্যাক্তি।বৃহস্পতিবার সন্ধা ৯ টার দিকে নিজ বাসভবনে  চিকিৎসাধীন অবস্হায় তিনি মারা যান।নিহত আলী হোসেন ফকির উপজেলার পাঁচ ভুলোট গ্রামের মৃত ইউছুপের ছেলে।

 

নিহত পরিবারের সদস্যরা জানান আগামী ২৮ নভেম্বর শার্শা উপজেলায় ইউপি নির্বাচন।নির্বাচনকে সামনে গত ২৩ অক্টোবর গোগা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী তবিবর রহমানের মনোনয়ন নিতে  তার সমর্থকরা  যশোর যান।

 

যশোর থেকে বাড়ী ফেরার পথে গোগা বাজারে রশিদ চেয়ার ম্যানের ছেলে সম্রাট,সুমন,জসিম ও সান্টুর নেতৃত্বে তবিবর রহমান সমর্থিত কর্মিদের উপর আতর্কিত হামলা চালায়।এতে ২০জন আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। ২০ জনের মধ্যে হোসেন আলী ফকিরের অবস্থা আশাংখাজনক ছিলো। পরে আহত হোসেন আলী ফকির শার্শা থানায় ঐ সন্ত্রাসী বাহিনীর সদস্যদের নাম উল্লেখ করে শার্শা থানায় একটি মামলাও করেছিলো।  ১৭ দিন মুত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে বৃহস্পতিবার সন্ধা ৯ টার দিকে তার মৃত্যু হয়েছে।

 

এ ব্যাপারে গোগা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, ঐ ঘটনার কারনে তার মৃত্যু হয়নি।সানে নির্বাচন। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আমার প্রতিপক্ষ ফাঁসানোর চেষ্টা করছে।পুলিশ লাশ ময়না তদন্তের জন্য নিয়ে গেছে।তদন্ত শেষে দোষী ব্যাক্তিদের শাস্তি হোক আমি চাই।
শার্শা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বদরুল আলম খান জানান নির্বাচনী সহিংসহায় আহত  হোসেন আলী ফকির মারা গেছে । লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে।