চুয়াডাঙ্গার শীর্ষ নারী মাদক কারবারি শিপ্রা গ্রেফতার

শিপ্রা বেগম, ৬০ বছর বয়সী এই নারীর বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে ৫১টি। জীবনে গ্রেফতার হয়েছেন শতাধিক বার। সবশেষ বুধবার (১৮ নভেম্বর) চুয়াডাঙ্গার ‘বুদ্ধিমান পাড়া’ এলাকা থেকে গ্রেফতার হয়েছেন তিনি। পুলিশ বলছে, শিপ্রা বেগম চুয়াডাঙ্গা জেলার শীর্ষ নারী মাদক কারবারি। তিনি স্থানীয় বুজরুকগড়গড়ি এলাকার মৃত বাবুল রহমানের স্ত্রী।

 

পুলিশ আরও জানিয়েছে, শিপ্রা বেগম প্রথমে সীমান্ত এলাকায় বিভিন্ন পণ্য চোরাচালান করতেন। পরে মাদক ব্যবসায় যুক্ত হন। ১৯৯১ সালে সর্বপ্রথম তার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। এরপর এই ৩০ বছরে ৫১টি মাদকের মামলা করা হয় তার বিরুদ্ধে। গ্রেফতার হন শতাধিকবার। বিভিন্ন মেয়াদে সাজাও হয়েছে চার মামলায়।

শিপ্রার স্বামী বাবুল মারা যান ২০১৫ সালে। তিনিও একাধিক মাদক মামলার আসামি ছিলেন। তার ছেলে আলী হোসেন পাঁচ মামলার আসামি; যার একটিতে ৩২ বছরের সাজা খাটছে ২০১৫ সাল থেকে।

 

শিপ্রা বেগম ঘরের ভেতরে ঢুকলে তাকে আর গ্রেফতার করা যায় না বলে জানিয়েছে পুলিশ। কারণ হিসেবে উল্লেখ করা হয়, ঘরের টয়লেটে গোপন একটি দরজা বানিয়েছেন তিনি। পুলিশ এলেই সেই দরজা দিয়ে পালিয়ে যান।

 

চুয়াডাঙ্গা থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন বলেন, শিপ্রা বেগমের তার বিরুদ্ধে ৫১টি মামলা রয়েছে। এর মধ্যে চারটি মামলায় বিভিন্ন মেয়াদে সাজাও হয়েছে। তার স্বামী-সন্তানও মাদক কারবারি। স্বামী মারা গেলেও তার সন্তান আলী হোসেন (৪০) মাদক মামলায় ৩২ বছরের সাজা খাটছেন।