চুয়াডাঙ্গায় উপবৃত্তির ১৬ হাজার টাকা খুইয়েছেন কলেজছাত্রী

প্রতীকী ছবি

চুয়াডাঙ্গায় যশোর শিক্ষাবোর্ডের কর্মকর্তা পরিচয়ে এক নারীর প্রতারণায় বিকাশের মাধ্যমে ১৬ হাজার টাকা খুইয়েছেন তানিয়া আক্তার নামের এক কলেজছাত্রী। তিনি বড়সলুয়া নিউ মডেল ডিগ্রি কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্রী।

 

শনিবার (৪ ডিসেম্বর) দুপুরে প্রতারণার বিষয়টি জানাজানি হয়।

 

তানিয়ার বাবা শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘সকালের দিকে আমি চুয়াডাঙ্গা শহরে থাকা অবস্থায় যশোর বোর্ডের কর্মকর্তা পরিচয়ে আমাকে ফোন দেন এক নারী। ফোনে ওই নারী বলেন, আপনার মেয়ে তানিয়াকে উপবৃত্তির টাকা দেওয়া হবে। এজন্য সাড়ে ১৬ হাজার টাকা দিতে হবে। তাকে বলেন বাড়ির যে কোনো নম্বর থেকে ফোন দিতে। তখন আমি ওই নারীর নম্বরটি তানিয়াকে দিই এবং বিকাশের দোকানে যেতে বলি।’

 

প্রতারণার শিকার তানিয়া আক্তার বলেন, বাবার কথামতো তিনি ওই নারীকে ফোন দেন। তিনি সাড়ে ১৬ হাজার টাকা বিকাশে পাঠাতে বলেন। পরে তিনি এক দোকানদারের মাধ্যমে টাকা পাঠিয়ে দেন।

 

বিকাশ করার পর দোকানি টাকা চাইলে তানিয়া বলেন, তার উপবৃত্তির টাকা এখনই এসে যাবে। তবে সকাল থেকে সন্ধ্যা গড়িয়ে গেলেও তানিয়ার উপবৃত্তির টাকা আর আসেনি। পরে তানিয়া বুঝতে পারেন তিনি প্রতারণার শিকার হয়েছেন।

 

বিকাশ এজেন্ট আহম্মদ আলী বলেন, ‘তানিয়ার কথামতো তার দেওয়া নম্বরে টাকা পাঠিয়ে দেই। পাঠানোর পর টাকা চাইলে সে বলে এখনই আমার উপবৃত্তির টাকা চলে আসবে। ওই টাকা থেকে আপনার টাকা দিয়ে দেবো। পরে তার কোনো টাকা আসেনি।’

 

এ ব্যাপারে চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন বলেন, এ বিষয়ে থানায় কেউ অভিযোগ করেননি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।