মোংলা বন্দরে ডুবন্ত জাহাজের র‍্যাকের ধাক্কায় দূর্ঘটনায় অয়েল ট্যাংকার

বঙ্গোপসাগরে সুন্দরবন উপকূলে বঙ্গবন্ধু আইল্যান্ডের কাছে মোংলা বন্দরের চ্যানেলের ১৫ নম্বর বয়া এলাকায় শনিবার সকালে ডুবন্ত জাহাজের র‍্যাকে সাথে ধাক্কা লেগে ‘এমটি মনোয়ারা’ নামের একটি তেলের ট্যাংকার ছিদ্র হয়ে গেছে।  দূর্ঘটনাকবলিত তেলের ট্যাংকার থেকে এসওএস ( সেভ এন্ড সোল) বার্তা পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে গেছে সুন্দরবনের হিরন পয়েন্টে পাইলট ষ্টেশনের কোস্টগার্ডের জাহাজ শহীদ মুনসুর আলী ও মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ ওয়েল স্পিল রেসপন্স ভেসেল।

 

দূর্ঘটনাকবলিত তেলের ট্যাংকার থেকে তেল সমুদ্রসহ বন্দর চ্যানেল ও সুন্দরবনে ছড়িয়ে পড়েছে কি না তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।তবে, তেলের ট্যাংকারটিতে কি পরিমান তেল রয়েছে তা তাৎক্ষনিক ভাবে জানাতে পারেনি মোংলা বন্দরের জনসংযোগ বিভাগ।

 

মোংলা বন্দর কতর্ৃপক্ষের বোর্ড ও জনসংযোগ বিভাগের উপ সচিব মো. মাকরুজ্জামান মুন্সি জানান, শনিবার (১৮ ডিসেম্বর) সকাল ৮টা ৪০ মিনিটের সময়ে আইল্যান্ডের কাছে মোংলা বন্দরের ১৫ নম্বর বয়া এলাকায় মুল চ্যানেলে বাইরে গিয়ে ডুবন্ত জাহাজের র‍্যাকে সাথে ধাক্কা লেগে ধাক্কা লেগে তেলের ট্যাংকারটির বালাচ ট্যাংক ছিদ্র হয়ে যায়। এর পরপরই দূর্ঘটনাকবলিত তেলের ট্যাংকার থেকে এসওএস ( সেভ এন্ড সোল) বাতার্ পেয়েঘটনাস্থলে ছুটে গেছে সুন্দরবনের হিরন পয়েন্টে পাইলট ষ্টেশনের কোস্টগার্ডের জাহাজ শহীদ মুনসুর আলী ও মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ ওয়েল স্পিল রেসপন্স ভেসেল। ঘটনাস্থলে যাওয়া
বন্দরের ওয়েল স্পিল রেসপন্স ভেসেল থেকে রিপোর্ট পাওয়ার পর দূর্ঘটনা কবলিত তেলের ট্যাংকার থেকে তেল নিঃসরণ হচ্ছে কিনা তা নিশ্চিত করবে।

 

এরপর সে অনুযায়ী বতেলের ট্যাংকারে মজুদকৃত তেল অন্য তেলের ট্যাংকারে স্থানান্তরের ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে, এই বন্দর কর্মকর্তা তেলের ট্যাংকারটিতে কি পরিমান তেল রয়েছে তা তাৎক্ষনিক ভাবে জানাতে পারেনি।