চুয়াডাঙ্গার কার্পাসডাঙ্গায় মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ১জন নিহত ও ২জন আহত

চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার কার্পাসডাঙ্গায়  দ্রুতগতির দুটি মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে আবুল কালাম (৫০) নামে এক ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন আরও দুজন। আহতদেরকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

 

রবিবার (০২ ডিসেম্বর) সন্ধার পর দামুড়হুদা উপজেলার কার্পাসডাঙ্গার ইউপি মোড়ে এ দূর্ঘটনা ঘটে। নিহত আবুল কালাম দামুড়হুদা উপজেলার কুড়ুলগাছি ইউনিয়নের ধান্যঘরা গ্রামের মৃত নেছার উদ্দিনের ছেলে। আহতরা হলেন,  উপজেলার কার্পাসডাঙ্গার আরামডাঙ্গা গ্রামের ওমর ফারুক মালিতার ছেলে শাকিল (২৬) ও হাওলী ইউনিয়নের রঘুনাথপুর গ্রামের আবুল হাইয়ের ছেলে হাসিবুল ইসলাম (২৮)।

 

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, আবুল কালাম নিজ বাড়ি থেকে মোটরসাইকেল যোগে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান কার্পাসডাঙ্গা বাজারে যাচ্ছিলেন। এসময় কার্পাসডাঙ্গা থেকে অপর একটি মোটরসাইকেল যোগে শাকিল ও হাসিবুল কুড়ুলগাছির উদ্দেশ্য রওয়ানা হন। পথিমধ্যে কার্পাডাঙ্গা ইউপি মোড়ে পৌছালে দুই মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে উভয় মোটরসাইকেলে থাকা তিনজনই রাস্তায় ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা দ্রুত তাদেরকে উদ্ধার চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেয়ার কিছুক্ষন পর রাত সাড়ে আটটার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আবুল কালামের মৃত্যু হয়।

 

 

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা.উৎপলা বিশ্বাস বলেন, জরুরি বিভাগের নেয়ার কিছুক্ষন পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় আবুল কালামের মৃত্যু হয়েছে। আহত দুজনের অবস্থা শঙ্কামুক্ত। তাদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ভর্তি রাখা হয়েছে।

 

এব্যাপারে দামুড়হুদা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফেরদৌস ওয়াহিদ দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ বিষয়ে কোন অভিযোগ না থাকায় এবং মৃতের স্বজনদের আবেদনের প্রেক্ষিতে মরদেহ পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে। উক্ত ঘটনায় দামুড়হুদা মডেল থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে তিনি জানান।