প্রেমিকের আত্মহত্যার খবর শোনার পরই আত্মহত্যা করলেন প্রেমিকা

প্রেমিকের আত্মহত্যার খবর শোনার পরই গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করলেন প্রেমিকা। বুধবার (৫ ডিসেম্বর) মাগুরার সদর উপজেলার বরুনাতৈল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

 

প্রেমিকের নাম সুমন (১৭) ও প্রেমিকার নাম এ্যানি (১৬)। এ্যানি মাগুরা শহরের দুধ মল্লিক মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী। সুমন মাগুরা সরকারি কারিগরি স্কুল অ্যান্ড কলেজের দশম শ্রেণির ছাত্র।

 

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বরুনাতৈল গ্রামের মহম্মদ আলীর ছেলে সুমন ও পার্শ্ববর্তী বারাশিয়া গ্রামের মো. হিরক মিয়ার মেয়ে এ্যানির মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল। কিন্তু উভয় পরিবারের পক্ষ থেকে তা মেনে নেয়নি। এ নিয়ে অভিমান করে সুমন গত মঙ্গলবার (৪ ডিসেম্বর) রাতে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। বুধবার দুপুরে জানাজা শেষে বরুনাতৈল গ্রামে সুমনের মরদেহ দাফন করা হয়।

এদিকে প্রেমিক সুমনের আত্মহত্যার খবর জানার পরপরই প্রেমিকা এ্যানি ঘরের দরজা বন্ধ করে ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে।

 

এ্যানির প্রতিবেশীরা জানান, ঘরের দরজা বন্ধ দেখতে পেয়ে অ্যানির মা প্রতিবেশীদের ডেকে আনেন। এ সময় দরজা ভেঙে এ্যানিকে ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখা যায়। এরপর তাকে উদ্ধার করে মাগুরা সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এ্যানির এক বান্ধবী বলে, এ্যানির সঙ্গে সুমনের প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল। মূলত প্রেমঘটিত বিষয় নিয়েই তারা দুজনে আত্মহত্যা করেছে বলে আমরা ধারণা করছি।

 

জানতে চাইলে সুমনের বাবা মহম্মদ আলী বলেন, ঠিক কী কারণে আমার ছেলে আত্মহত্যা করল, তা বলতে পারব না।

 

মাগুরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঞ্জুরুল আলম বলেন, বরুনাতৈল ও বারাশিয়া এলাকায় দুই শিক্ষার্থীর আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। প্রাথমিকভাবে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল বলে জানা গেছে। এ বিষয়ে দুটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।