দামুড়হুদার জয়রামপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষার্থীরা যাতায়াত করছে ঝুঁকি নিয়ে

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার জয়রামপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মেইন গেট ভেঙ্গে ঝুঁলে পড়েছে। ঝুঁকি নিয়ে এই গেট দিয়ে যাতায়াত করছে শিক্ষক শিক্ষার্থীরা। য়ে কোন সময় ভেঙ্গেপড়ে ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা।

 

মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক ফারুক আহাম্মেদ জানান, করোনার কারনে বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় কোন মতে নিজেরা সতর্কতার সাথে যাতায়াত করা হতো। পুরা গেট খোলার মতো অবস্থা নেই। কোন মতে পকেট গেট একজন ধরে দাড়িয়ে অন্যদের যাতায়াত করতে হয়। ইতোমধ্যে বিদ্যালয় খুলে দেওয়া হয়েছে।বিদ্যালয়ে জেনারেল ও ভকেশনাল মিলে প্রায় ৮০০ ছাত্র/ছাত্রী রয়েছে। এখন প্রতিদিন শিক্ষক শিক্ষার্থীরা নিয়মিত যাতায়াত করবে। অসাবধানতা বসত গেট টি খুলে পড়ে যে কোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে। দ্রুত গেইটটি মেরামতের প্রয়োজন।

 

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি আবু সাঈদ খোকন বলেন,২০২১ সালে মাঝামাঝি সময় চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের অর্থায়নে প্রায় ৪লক্ষ টাকা ব্যায়ে এই গেট টি নির্মান করা হয়। নিম্নমানের নির্মান সামগ্রী ব্যবহার করার কারনে এমন অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

 

নির্মানের দুই মাস পার না হতেই এমন দশা হয়েছে। গেট দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করতে হচ্ছে। বর্তমানে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ায় নিয়মিত শিক্ষক শিক্ষার্থীরা যাতায়াত করবে। অসাবধনতা বসত গেট ভেঙ্গে পড়ে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। বড় ধরনের দুর্ঘটনা এড়াতে দ্রুত গেট টি সংস্কার করা খুবই প্রয়োজন।