কক্ষে আটকে রেখে শ্লীলতাহানি: চিরকুট লিখে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

জামালপুরের মেলান্দহে দশম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে শ্লীলতাহানির ঘটনা ঘটেছে। পরে সেই স্কুল ছাত্রী তামিম আহম্মেদ স্বপন (২৫) নামে এক যুবককে অভিযুক্ত করে চিরকুট লিখে আত্মহত্যা করে। শুক্রবার (১১ মার্চ) এই ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

 

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মেলান্দহের সাধুপুর কান্দাপাড়া গ্রামের মো: খোকা মোল্লার ছেলে তামিম আহমেদ স্বপন উপজেলার পূর্ব শাহাজাতপুরের মো. আবু মিয়ার একমাত্র মেয়ে মালঞ্চ এম এ গফুর উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী আশামনি (১৫) কে স্কুলে যাতায়াতের পথে বিরক্ত করত।

 

গতকাল বৃহস্পতিবার (১০ মার্চ) সকালে সহপাঠী বুলবুলি, মিথিলা ও শায়লা প্রাইভেট পড়ার কথা বলে আশামনিকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। সাধুপুর কান্দাপাড়ার একটি বাড়িতে দিনভর একটি কক্ষে আটকে রেখে আশামনিকে শ্লীলতাহানি করে তামিম আহমেদ স্বপন।

 

এরপর বিকেল ৩টায় আশামনি বাড়ি ফিরে নিজের ঘরে দরজা বন্ধ করে ঘুমিয়ে যায়। সন্ধ্যার দিকে কোন সাড়াশব্দ না পেয়ে আশামনির মা শিলা বেগম জানালা দিয়ে মেয়েকে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান। তার ডাক চিৎকারে প্রতিবেশিরা ছুটে আসে। পরে পুলিশে খবর দিলে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জামালপুর শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়।

 

ঘটনার পর আশামনির ঘর থেকে দুটি চিরকুট উদ্ধার করা হয়। চিরকুটে লেখা ছিল, তামিম আমাকে সারাদিন এক রুমে আটকাইছে। তামিম আমাকে খুব ডিস্টার্ব করত ও আমাকে বলেছে ওর সঙ্গে দেখা করলে সে আমার জীবন থেকে চলে যাবে। কিন্তু ও আমার সঙ্গে খুব খারাপ কিছু করেছে যা বলার মত না।

 

মেলান্দহ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম এম ময়নুল ইসলাম জানান, এই ঘটনায় আশামনির বাবা আবু মিয়া শুক্রবার থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। আসামিকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।