আলমডাঙ্গায় সেপটিক ট্যাংকে নেমে দুই শ্রমিকের মৃত্যু

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় নির্মাণাধীন বাড়ির সেপটিক ট্যাংকে নেমে দুই শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার (১৮ মার্চ) সকালে আলমডাঙ্গা পৌরসভার দাসপাড়া এলাকার এ ঘটনা ঘটে।

 

মৃতরা হলেন- কুষ্টিয়ার শিলাইদহ গ্রামের আনসার আলীর ছেলে শরিফুল ইসলাম (৩৫) ও পাবনার চাটমোহর রেলবাজার এলাকার রাজ কুমার দাসের ছেলে সাগর কুমার দাস (১৪)

 

নির্মাণাধীন বাড়ির মালিক নিখিল কুমার দাস জানান, নির্মাণাধীন টয়লেটের সেপটিক ট্যাংকে কাজ চলছে। শুক্রবার সকালে ট্যাংকের ভেতর কাজ করছিলেন শ্রমিক শরিফুল ইসলাম। পরে তার কোনো সাড়া-শব্দ না পেয়ে সাগর তাকে ডাকতে যায়। এক পর্যায়ে দুজনই ট্যাংকের ভেতর থেকে উঠে না আসায় তাদের উদ্ধারের জন্য ফায়ার সার্ভিসে খবর দেওয়া হয়। পরে তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেন ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা। সেখানে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

 

আলমডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মির্জা গালিব জানান, হাসপাতালে নিয়ে আসার আগেই দুই শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে।

 

এ বিষয়ে আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম জানান, দুই শ্রমিকের মরদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে। তাদের বাড়িতে স্বজনদের খবরও দেওয়া হয়েছে। ওই ঘটনায় আইনগত বিষয় প্রক্রিয়াধীন।