দৌলতপুর সীমান্তে বাংলাদেশীর মরদেহ ১৪ দিন পর ফেরত দিলো বিএসএফ

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরের বিলগাথুয়া সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে নিহত বাংলাদেশী লিটন হোসেনের মরদেহ ১৪ দিন পরে ফেরৎ দিলেন ভারতের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ।

 

ভারত ভূ-খন্ডে বাংলাদেশ বর্ডারগার্ড ও বিএসএফ-র পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে শনিবার বিকেল ৫ টায় লিটনের লাশ হস্তান্তর করে। ভারতের নদীয়া জেলার ১৫১/১৪ এস পিলার সংলগ্ন পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। দু’দেশের পতাকা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন করিমপুর (ভারত) থানার অফিসার ইনচার্জ (সিআই) উমর ফারুখ, মেঘনা কোম্পানী কমান্ডার (এসি) রাজেশ টিকে লাকরা এবং বাংলাদেশের প্রাগপুর কোম্পানী কমান্ডার নায়েক সুবেদার আমজাদ হোসেন ও দৌলতপুর থানার প্রতিনিধি হিসেবে এসআই জিয়াউর রহমান।

 

এসময় লিটনের মরদেহ তার পরিবারের পক্ষথেকে লিটনের ছোট ভাই শিপন এর হস্তান্তর কাছে করেন। বর্ডারগার্ড বাংলাদেশে শক্ত ভুমিকায় লিটনের মরদেহ ১৪ দিন পর বিএসএফ ফেরৎ দিলো বলে জানান এলাকাবাসী।

 

নিহত লিটন হোসেন উপজেলার প্রাগপুরের বিলগাথুয়া গ্রামের মাঠপাড়ার আকবর বিশ্বাসের ছেলে।
উল্লেখ্য গত ৫ মার্চ (শনিবার) এশার নামাজের কিছু আগে বিলগাথুয়া সীমান্ত দিয়ে ভারত থেকে একদল মাদক ব্যবসায়ী মাদক আনতে গেলে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের সদস্যরা তাদের লক্ষ্য করে গুলি করেন। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান লিটন। পরে তাঁর মরদেহ নিয়ে যায় বিএসএফ।