মণিরামপুরের মাছের ঘের থেকে এক মুদি দোকানদারের লাশ উদ্ধার

যশোরের মণিরামপুরে মাছের ঘের থেকে বিল্লাল হোসেন (৪০) নামে এক মুদি দোকানির ভাসমান লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

 

শনিবার (১৯ মার্চ) সন্ধ্যায় উপজেলার লক্ষ্মণপুর এলাকার জনৈক উজ্জ্বলের ঘেরে লাশটি দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেন। পুলিশ ঘেরের পাড়ে পড়ে থাকা বিল্লালের ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি উদ্ধার করেছে।

বিল্লাল হোসেন লক্ষ্মণপুর গ্রামের আব্দুল সরদারের ছেলে। তিনি চার কন্যার জনক। স্থানীয় নেংগুড়াহাট বাজারে তার মুদি দোকান রয়েছে।

 

পুলিশসহ স্থানীয়রা জানান, ব্যবসা করতে যেয়ে অনেক ঋণ করেন বিল্লাল। এ নিয়ে স্ত্রী আমেনা খাতুনের সাথে তার প্রায় ঝগড়া হতো। শুক্রবার (১৮ মার্চ) বিকেলে স্ত্রীর সাথে ফের ঝগড়া হয় বিল্লালের। এরপর তিনি দোকানে চলে যান। রাতে সেখান থেকে আর ফেরেননি। পরে খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে শনিবার বিকেলে বাড়ি থেকে এক কিলোমিটার দূরে উজ্জ্বলের ঘেরে স্বামীর ভাসমান লাশ দেখতে পান আমেনা।

 

স্থানীয়দের ধারণা বিষপানে বিল্লাল আত্মহত্যা করেছেন। বিষ খাওয়ার পর তিনি ঘেরের পাড়ে বমি করেন। সে বমি খেয়ে একটি শালিখ পাখি মারা গেছে। ঘেরের পাড়ে পাখিটিকে মৃত পড়ে থাকতে দেখা গেছে।

 

রাজগঞ্জ তদন্ত কেন্দ্রের উপ পরিদর্শক (এসআই) লিটন মিয়া শনিবার সন্ধ্যায় ঘটনাস্থল থেকে মোবাইল ফোনে বলেন, স্থানীয়দের ভাষ্য অনুযায়ী প্রাথমিক ধারণা করা হচ্ছে ঋণের দায়ে ও স্ত্রীর সাথে অভিমান করে কিছু একটা ঘটেছে। ময়নাতদন্ত ছাড়া বিস্তারিত বলা যাচ্ছে না।