চুয়াডাঙ্গায় লাটাহাম্বারের চাকায় পিষ্ট হয়ে এক পুলিশ সদস্য নিহত

চুয়াডাঙ্গায় শ্যালো ইঞ্জিনচালিত অবৈধ যান লাটাহাম্বারের চাকায় পিষ্ট হয়ে আবু বক্কর নামে (৫৯) এক পুলিশ সদস্য নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (৫ এপ্রিল) দুপুর দেড়টার দিকে চুয়াডাঙ্গা-দামুড়হুদা সড়কের রাজা ইটভাটার অদূরে এ দুর্ঘটনা ঘটে। 

 

স্থানীয়রা আহত অবস্থায় আবু বক্করকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর মৃত ঘোষণা করেন।

 

নিহত আবু বক্কর কুষ্টিয়ার কুমারখালী থানার গোবরা গ্রামের মৃত সিহাব উদ্দিনের ছেলে এবং চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার কার্পাসডাঙ্গা পুলিশ ক্যাম্পে কনস্টেবল হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

 

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, দুপুরে চুয়াডাঙ্গা শহরের এটিএম বুথ থেকে বেতন তুলে মোটরসাইকেলযোগে কর্মস্থল কার্পাসডাঙ্গা পুলিশ ক্যাম্পে যাচ্ছিলেন আবু বক্কর। পথিমধ্যে চুয়াডাঙ্গা-দামুড়হুদা সড়কের রাজা ব্রিকস ইটভাটার কাছে পৌঁছালে পাশাপাশি চলা একটি মোটরসাইকেলের সঙ্গে ধাক্কা লেগে রাস্তায় ছিটকে পড়েন আবু বক্কর। এ সময় পেছন থেকে আসা একটি শ্যালো ইঞ্জিনচালিত লাটাহাম্বারের চাকা কোমরের ওপর দিয়ে চলে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনার পর পুলিশ লাটাহাম্বারটি জব্দ করেছে। চালককে আটক করা হয়েছে। ওই মোটরসাইকেল চালক পালিয়ে গেছেন।

 

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মুস্তাফিজুর রহমান বলেন, পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর মৃত তাকে ঘোষণা করা হয়েছে। হাসপাতালে আসার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।

 

চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আবু তারেক বলেন, বেতন তুলে চুয়াডাঙ্গা থেকে কর্মস্থলে যাচ্ছিলেন তিনি। পথিমধ্যে দুই মোটরসাইকেলের ধাক্কায় রাস্তায় পড়লে পেছন থেকে আসা লাটাহাম্বারের চাকা তার কোমরের ওপর দিয়ে চলে যায়। হাসপাতালে নিলে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। লাটাহাম্বারটি জব্দ ও চালককে আটক করা হয়েছে। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশনা অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে