সাতক্ষীরায় দুই সন্তানের জনকের হাত ধরে দুই সন্তানের জননী উধাও

পরকীয়া প্রেমের সূত্র ধরে দুই সন্তানের জনকের হাত ধরে অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি জমিয়েছেন দুই সন্তানের জননী। সাতক্ষীরার তালা উপজেলার জেয়ালা নলতা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

 

উধাও হওয়ার শামিমা বেগম এর শশুর আজগ মোড়ল জানান, আটারই গ্রামের জসিম মোড়লের ছেলে দুই সন্তানের জনক মস্তো শামিমার (২৮) সঙ্গে একই এলাকার রিয়াজুল মোড়লের স্ত্রী দুই সন্তানের জননী আমার বৌ মা শামিমা বেগম (২৮) পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরই সূত্র ধরে গত বুধবার (১৩ এপ্রিল) সকাল অনুমান ৮ টা দিকে তার পিতার বাড়ি ডুমুরিয়া থানার অন্তর্গত বেতাগ্রাম হতে তারা অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি জমিয়েছেন।

 

উল্লেখ্য গত (১২ এপ্রিল) আমার নিজ ঘর থেকে রক্ষিত নগদ এক লক্ষ টাকা একজোড়া স্বর্ণের কানের দুল নিয়া তার বাপের বাড়ি চলে যায়, সেখান থেকে তিন তাঁর চার বছরের একটি ছেলে সঙ্গে করিয়া নিয়ে যায় এবং তার একটি মেয়ে কে বাড়িতে রেখে চলে যায়।

 

বেতাগ্রমে শামিমার ভাই রহমত আলী গাজী বলেন, বুধবার সকাল অনুমান ৮ট দিকে তারা বাড়ি ছেড়ে চলে গেছেন। পরবর্তীতে বিভিন্ন জায়গায় খুজাখুজির পর জানতে পারি। তালা উপজেলার আটারই গ্রামে এর মস্তোর সঙ্গে ঢাকায় চলে গেছে ।

 

এ বিষয়ে মস্তোর স্ত্রী নাজমা বেগম বলেন আমার স্বামী ৮ দিন আগে বাড়ি থেকে গচ্ছিত নগর টাকা ও রিয়াজুল এর স্ত্রীকে নিয়ে কোথায় চলে গেছে, আর বাসায় ফিরে আসি নাই, আমার দুটি সন্তান আছে এক ছেলে এক মেয়ে ছেলেটার বিয়ে দিয়েছি তাঁরা সংসার

করছে আমি আমার স্বামীকে ফিরে পেতে চাই। যার স্ত্রী তার কাছে চলে যাক আর আমার স্বামী আমার কাছে ফিরে আসুক।

 

এ বিষয়ে রিয়াজুল মোড়ল বলেন, আমার স্ত্রী বাসা থেকে নগদ টাকা ও স্বর্ণ অলংকার নিয়ে ও আমার ছোট বাচ্চা কে সঙ্গে করে মস্তোর সঙ্গে চলে গেছে যদি কেউ আমার স্ত্রীকে ধরিয়ে দিতে পারেন তাহলে তাকে আমি নগদ (১০) দশ হাজার টাকা পুরস্কার দিবো। যোগাযোগ এর জন্য মোবাইল নম্বর 01973669653 =01914282830

 

এ বিবিষয়ে তালা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবু জিহাদ ফখরুল আলম খান বলেন, এ ব্যাপারে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী হয়েছে পরবর্তীতে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।