ঈদের ছবি গলুই দেখতে উপচে পড়া ভিড়

হাউজফুল শো, টিকেটের জন্য লম্বা লাইন কিংবা হল চত্ত্বরে উপচে পড়া ভিড়; সিনেমা মুক্তিকে কেন্দ্র করে এমন রূপ দেখা গেল দেশের সিনেমাগুলোতে! যা করোনার কারণে গত দুই বছর দেখাই যায়নি। আবার দর্শক হলে আসছেন।

 

বেশির ভাগ দর্শক সিনেমা হলে আসছেন শাকিব খানের টানে। ঢাকাই সুপারস্টার শাকিব খানের ‘গলুই’ ছবি মুক্তি পেয়েছে এই ঈদে। ছবি টি নির্মাণ সংশ্লিষ্ট ও হল মালিকদের সঙ্গে মুঠোফোনে আলাপ করলে তারা জানান, শাকিব খানের টানে ছবি দেখতে আসছে দর্শক। তিনি পেরেছেন দর্শকদের হলে ফেরাতে!

 

ঢাকার স্টার সিনেপ্লেক্সে পরিবার নিয়ে বেশি দর্শক ‘গলুই’ দেখতে আসছেন দর্শক। তারা এ ছবি দেখে মুগ্ধ হচ্ছেন। বলছেন, দীর্ঘদিন পর ভিন্ন এক শাকিব ও অন্যরকম গল্পের সিনেমা পেয়েছেন গলুইতে।

 

তবে স্টার সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ জানায়, প্রথমদিন গলুইয়ের দর্শক বেশ ভালো ছিল। তাদের প্রত্যাশা, আরও দর্শক বাড়বে।

 

কেরানীগঞ্জের লায়ন সিনেমাস থেকে গলুই দেখে অনেক দর্শক শাকিব খানের নাম উচ্চারণ করে হাঁকতে হাঁকতে হল থেকে বের হচ্ছেন। কেউ কেউ আবার গলুই দেখে ছবির গান গাইতে গাইতে বের হচ্ছেন; সেই ভিডিও ঘুরে বেড়াচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

 

তবে তুলনামূলক হল কম পাওয়ায় অনেক দর্শক গলুই দেখতে না পেয়ে আক্ষেপ করছেন। বাধ্য হয়ে অন্য ছবি দেখতে হচ্ছে তাদের এমন অভিযোগ করেন কেউ কেউ।

 

গলুই ছবি পরিচালক এস এ হল অলিক বলছেন, সবখানে গলুই খুব ভালো যাচ্ছে। শতশত মানুষ ছবি দেখে ফিডব্যাক দিচ্ছেন। বিশেষ করে জামালপুর জেলায় চুটিয়ে ব্যবসা করছে গলুই। প্রথমদিন হাউজফুলের পাশাপাশি দর্শকদের এতটাই চাপ ছিল যে নাইট শো বাড়াতে হয়েছে। শুটিং দেখতে হাজার হাজার মানুষ এসেছিল, তারা আবার হলে আসছে গলুই দেখতে।

 

বগুড়ার সোনিয়া হলে চলছে গলুই। দায়িত্বে থাকা সাজেদ ইসলাম রানা চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, প্রথমদিনে গলুইয়ের চারটি শোয়ের তিনটি হাউজফুল গেছে। যা আমরা কল্পনাও করিনি। অনেক দর্শক টিকেট না পেয়ে সন্ধ্যায় দাঁড়িয়ে ছবি দেখেছেন। শাকিব খানের সিনেমা বলেই এটা সম্ভব হয়েছে।