দৌলতপুরে যুবকের হাত-পায়ের রগ কেটে খুন

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মাহবুব খান সালাম (৪০) নামে জাতীয় যুব জোটের এক নেতাকে হাত-পায়ের রগ কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। বুধবার (১১ মে) রাত ১১টার দিকে উপজেলার আল্লারদর্গা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 

 

নিহত মাহবুব খান সালাম জাসদের জাতীয় যুব জোটের দৌলতপুর উপজেলার সাধারণ সম্পাদক। তিনি উপজেলার আমদহ গ্রামের আলাউদ্দিনের ছেলে।

 

স্বজন ও স্থানীয়রা জানায়, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দৌলতপুর উপজেলার হোগলবাড়িয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সেলিম চৌধুরী ও উপজেলা যুবলীগের বহিষ্কৃত আহ্বায়ক টোকেন চৌধুরীর নেতৃত্বে ২০-২৫ জন হামলা চালায়। তারা সালামকে কোপায় ও হাত-পায়ের রগ কেটে দেয়। গুরুতর আহত অবস্থায় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত দেড়টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

 

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, বুধবার রাত ১২টার দিকে গুরুতর আহত অবস্থায় সালামকে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত দেড়টার দিকে তার মৃত্যু হয়। সালামের শরীরের বিভিন্ন জায়গায় গুরুতর জখমের চিহ্ন রয়েছে। মরদেহ কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

 

দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাবীদ হাসান, হোগলবাড়িয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সেলিম চৌধুরী ও উপজেলা যুবলীগের বহিষ্কৃত আহ্বায়ক টোকেন চৌধুরীর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তাদের পাওয়া যায়নি।

 

জাতীয় যুব জোটের সভাপতি রোকনুজ্জামান রোকন ও সাধারণ সম্পাদক শরিফুল কবির স্বপন এক বিবৃতিতে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত সালামের প্রতি গভীর শোক এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন। তারা বলেন, মাহবুব খান সালাম ছিলেন প্রতিবাদী ও স্পষ্টবাদী। তারা অবিলম্বে সালামের হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবি জানান।