ভারতে জেল খেটে দেশে ফিরল পাচারের শিকার ৮ নারী ও ১ শিশু

ভারতে পাচারের শিকার ৮ নারী ও ১ জন শিশু সহ ৯ জন বিভিন্ন মেয়াদে জেল খেটে বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যেমে দেশে ফিরেছে। ভারতের ইমিগ্রেশন পুলিশ বুধবার বিকাল সাড়ে ৫ টার সময় বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে।

 

ফেরত আসা নারীরা হলেন,হবিগঞ্জ জেলার রজব আলীর মেয়ে খুসানা আক্তার (২৪) ও খুসানা আক্তার  ছেলে রুহান আক্তার (১বছর ৬মাস), যশোর জেলার শার্শা থানার মিজানুর রহমান এর মেয়ে চম্পা খাতুন (২০) খুলনা জেলার খায়বার মোল্যার মেয়ে খুরশিদা খাতুন (২২) জয়পুর হাট জেলার আনোয়ার হোসেন এর মেয়ে বিজলী খাতুন (২৩) খুলনা জেলার সবুর মোল্যার মেয়ে দিলরুবা (১৯) ফরিদপুর জেলার বাবুল মিয়ার মেয়ে সোনিয়া আক্তার (২০) মুন্সিগঞ্জ জেলার লাল মিয়ার মেয়ে জেসমিন খাতুন (২৩) খুলনা জেলার আবুল হোসেনের মেয়ে সুমি খাতুন (২৩)।

 

বেনাপোল ইমিগ্রেশন ওসি মোহাম্মাদ রাজু বলেন, এরা ভালো কাজের আশায় বিভিন্ন সীমান্ত পথে ভারতের মোম্বাই শহরে পাড়ি জমায়। এরপর সেদেশে বাসা বাড়ি সহ বিভিন্ন কাজ করার সময় পুলিশের কাছে ধরা পড়ে। পরে একটি এনজিও সংস্থার মাধ্যেমে তারা আদালত থেকে লিলুয়া নামে  শেল্টার হোমে থাকে। এরপর তারা ১ থেকে ২ বছর মেয়াদে সেখানে থাকার পর বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যেমে আজ দেশে ফেরে। ইমিগ্রেশন এর কাজ শেষে তাদের বেনাপোল পোর্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

 

বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি কামাল হোসেন ভুইয়া  বলেন, থানার আনুষ্ঠানিকতা শেষে তাদের জাস্টিস এন্ড কেয়ার নামে একটি এনজিও সংস্থার কাছে তুলে দেওয়া হবে।

 

জাষ্টিস এন্ড কেয়ার এর সমন্বয়কারী রোকেয়া পারভিন বলেন, ফেরত আসাদের যশোর তাদের নিজ শেল্টার হোম রাখা হবে । এরপর পরিবারের সাথে যোগাযোগ করে তাদের নিজ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।