মুম্বাই বন্দরে মনিরামপুরের বাংলাদেশি নাবিকের মৃত্যু

আবু রাশেদ ছবি: সংগৃহীত

ভারতের মুম্বাই বন্দরের জলসীমায় নোঙর করা অবস্থায় বাংলাদেশি একটি জাহাজে কর্মরত এক নাবিকের মৃত্যু হয়েছে। গত মঙ্গলবার দুপুরে জাহাজে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাঁকে সেখানকার একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় পরদিন ভোরে তাঁর মৃত্যু হয়।

 

নিহত ব্যক্তির নাম আবু রাশেদ (২২)। তাঁর বাড়ি যশোরের মনিরামপুরে। গত মার্চে বাংলাদেশের পতাকাবাহী এমভি জাহাজ মণি–তে ডেক ক্যাডেট হিসেবে যোগদান করেন তিনি। বাংলাদেশ মেরিন ফিশারিজ একাডেমির ৪০তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ছিলেন আবু রাশেদ।

 

নিহত আবু রাশেদের বড় ভাই রাসেল পারভেজ প্রথম আলোকে বলেন, ‌‌‘সর্বশেষ গত শুক্রবার তার সঙ্গে কথা হয়েছে। এক মাস ধরে কিছুটা অসুস্থতার কথা জানিয়েছিল সে। অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধ সেবন করে সে জাহাজে কাজ করছিল। কী কারণে হঠাৎ করে তাঁর মৃত্যু হলো, তা এখনো নিশ্চিত হতে পারিনি।’

 

এমভি জাহাজ মণি এসআর শিপিং লিমিটেডের। প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মেহেরুল করিম প্রথম আলোকে বলেন, শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যায় গত ৩১ মে তাঁকে মুম্বাইয়ের জে জে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়। তাঁর লাশ দেশে আনার প্রক্রিয়া চলছে।