যশোরে মাছ ধরতে ড্রেনে নেমে আটকে পড়া ৩ শিশু-কিশোর উদ্ধার করলো ফায়ার সার্ভিস

যশোরে মাছ ধরতে নেমে ড্রেনে আটকে পড়া তিন শিশু-কিশোরকে উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস।
মঙ্গলবার বিকেল সোয়া ৩টার দিকে ‘জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯’ নম্বরে ফোন করে জরুরি উদ্ধার সহায়তা চেয়ে অনুরোধ জানান খালিদ হাসান নামে একজন কলার।

উদ্ধারকৃতরা হলো- নিরব (১৪), হৃদয় (১৯) ও নয়ন (১৩)।

কলার জানান, সেখানে ড্রেনের ভিতর কয়েকটি শিশু আটকা পড়েছে। তিনি শিশুদের কান্নাকাটি ও বাঁচাও বাঁচাও চিৎকার শুনতে পাচ্ছিলেন। ড্রেনের ছোট্ট একটি ফোকর দিয়ে তিনি কান্নারত এক শিশুকে দেখতে পেয়েছেন, তার থেকে জানতে পেরেছেন ড্রেনের ভেতরে আরও দুই শিশু রয়েছে তার সঙ্গে।

 

৯৯৯ কলটেকার কনষ্টেবল মোসাম্মৎ ফাতেমা আক্তার তাৎক্ষণিক ভাবে যশোর ফায়ার সার্ভিস স্টেশনে বিষয়টি জানিয়ে দ্রুত উদ্ধার তৎপরতার অনুরোধ জানায়। পরবর্তীতে ৯৯৯ ফায়ার ডিসপাচার ফায়ার ফাইটার মো. আল আমিন কলার এবং সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে যোগাযোগ করে উদ্ধার তৎপরতার আপডেট নিতে থাকেন।

 

খবর পেয়ে যশোর ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের একটি উদ্ধারকারী দল অবিলম্বে ঘটনাস্থলে যায়। ড্রেনে নামার আর কোন পথ না থাকায় ঢালাই করা ড্রেনের কংক্রিট স্ল্যাব ভাঙ্গার প্রয়োজন হয়ে পড়ে উদ্ধারকারী দলের। এরপর ড্রেনে বিষাক্ত গ্যাস থাকার ঝুঁকি উপেক্ষা করে ফায়ার সার্ভিস উদ্ধারকারীরা ড্রেনে নেমে প্রথমে এক কিশোরকে উদ্ধার করে।

 

এরপর ড্রেনের ভেতর অর্ধ কি. মি. দূর থেকে আরও দুই শিশুকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। শিশু তিনটি মাছ ধরার জন্য ড্রেনে নেমেছিল, হাঁটতে হাঁটতে একপর্যায়ে অনেক দূর চলে আসার পর অন্ধকার ড্রেনের ভেতর তারা দিক ও পথ হারিয়ে ফেলে বলে জানা যায়।

 

ফায়ার সার্ভিস দলের নেতৃত্বে থাকা যশোরের সহকারী পরিচালক মনোরঞ্জন সরকার ৯৯৯ কে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।