বানারীপাড়ায় দুই পায়ের রগ কাটা অবস্থায় প্রতিবন্ধি বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার

বরিশালের বানারীপাড়ায় সলিয়াবাকপুর গ্রামে সৈয়দ আ. লতিফ (৬০) নামের এক শারিরীক প্রতিবন্ধি বৃদ্ধের দুই পায়ের রগ কাটা অবস্থায় রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

 

১৭ জুলাই রবিবার বিকাল ৩টার দিকে নিজ ঘরে খাট ও হুইল চেয়ারের ওপর তার দু’পায়ের রগকাটা মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেওয়া হয়। খবর পেয়ে বানারীপাড়া থানার নবাগত অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এসএম মাসুদ আলম চৌধুরী ও ইন্সপেক্টর (তদন্ত) জাফর আহম্মেদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

 

এছাড়া বরিশালের সিআইডির একটি টিমও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করেন। জানা গেছে, প্রায় ২০/২২ বছর পূর্বে গাছ থেকে পড়ে লতিফ মীর গুরুতর আহত হন। এক পর্যায়ে তার কোমড়সহ দুই পা অবশ হয়ে যায়। পক্ষাঘাতগস্থ হয়ে সেই থেকে তিনি হুইল চেয়ারে চলাফেরা করতেন। তার একমাত্র ছেলে ঢাকায় ও  তিন মেয়ে  বিয়ে হয়ে শ্বশুর বাড়িতে থাকায় তিনি অশীতিপর বৃদ্ধ বাবা-মা ও স্ত্রীর সঙ্গে বানারীপাড়ার সলিয়াবাকপুর গ্রামের বাড়িতে থাকতেন। তার বাবাও স্ট্রোক করে শয্যাশায়ী।  ঘটনার সময় তার স্ত্রী বরিশাল শহরে ছিলেন।

 

এ বিষয়ে বানারীপাড়া থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) জাফর আহম্মেদ বলেন ,২০ বছরের অধিক সময় ধরে পক্ষাঘাতগ্রস্থ লতিফ মীর শারিরীক অসুস্থতা ও অক্ষমতার কারনে হতাশা থেকে আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। তার লাশের পাশে ব্লেড  পাওয়া গেছে বলেও জানান তিনি।

 

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মাষ্টার সিদ্দিকুর রহমান জানান, দীর্ঘদিনের শারিরীক অসুস্থতার জন্য সাম্প্রতিক সময়ে সৈয়দ আ.লতিফ মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেছিলেন। ধারণা করা হচ্ছে হতাশা থেকে তিনি আত্মহননের পথ বেঁেচ নিয়েছেন। এ প্রসঙ্গে বানারীপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এসএম মাসুদ আলম চৌধুরী বলেন, মৃত্যু রহস্য উদঘাটনে ময়না তদন্তের জন্য লাশ বরিশাল শেবাচিম হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।