আটোয়ারীতে যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ,স্বামী আটক

পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় বুধবার (১ সেপ্টম্বর) যৌতুক লোভী স্বামী মোঃ শাহীন আলমকে আটক করেছে পুলিশ।

মামলা সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার রাধানগর লক্ষীদাসী গুচ্ছগ্রামের বাসিন্দা জনৈক মোঃ বাবুলের পুত্র শাহীন আলমের (২৫) সাথে ২০১৬ সালে ইসলামিক শরিয়ত মোতাবেক আলোয়াখোয়া ইউনিয়নের মোলানী গ্রামের মোঃ ইয়াছিন আলীর কন্যা মোছাঃ বানেসা’র (২২) বিয়ে হয়। সেসময় বিয়েতে যৌতুক দেওয়ার কথা ছিল এক লক্ষ আটাশ হাজার টাকা। অসহায় বানেসার পিতা বিয়ের সময় কোন রকমে এক লক্ষ টাকা জোগাড় করে জামাই শাহীনের হাতে তুলে দিয়েছিল এবং তার মেয়ে-জামাই যথারীতি সংসার জীবন শুরু করে। সংসার জীবনে তাদের ঘরে দুই বছর বয়সী একটি পুত্র সন্তান রয়েছে।

বিয়ের পর থেকে শাহীন যৌতুকের বাকী টাকার জন্য মাঝে মধ্যে কারনে অকারনে তার স্ত্রীর ওপর শারীরিক নির্যাতন চালাতো। সর্বশেষ গত ২৫ আগষ্ট দুপুরে তুচ্ছ ঘটনায় বানেসা’র ওপর আবারো শারীরিক নির্যাতন চালালে সে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। পাষন্ড শাহীন সেসময় স্ত্রীর গুরুতর অসুস্থতা সত্তে¡ও তাকে সু-চিকিৎসার ব্যবস্থা না করে বিনা চিকিৎসায় বাড়িতে রেখে দেন। এ অবস্থায় বানেসার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) সকালে আটোয়ারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তির দু-ঘন্টা পর বানেসা মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও প. প. কর্মকর্তা ডা. মোঃ হুমায়ুন কবীর বলেন, বানেসা নামের রোগীটা সকালে শ্বাসকস্ট নিয়ে হাসপাতালের এক্সট্রা-ম.১ বেডে ভর্তি হয়েছিল। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়। ওই দিন সন্ধ্যায় বানেসার পিতা বাদী হয়ে জামাই শাহীন সহ তিন জনের নামে ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন(সং/০৩) এর ১১(ক)/৩০ ধারায় আটোয়ারী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-০১, তারিখ ১ সেপ্টেম্বর/২০২১।

এ ব্যাপারে আটোয়ারী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইজার উদ্দীন বলেন, ভিকটিমের লাশ ময়না তদন্তের জন্য পঞ্চগড় মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। মামলা দায়েরের পর পরই আমরা মূল আসামীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছি এবং অপরাপর আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।