দামুড়হুদার দর্শনায় ট্রেনে কাটাপড়ে মাদ্রাসা ছাত্রের মৃত্যু

চুয়াডাঙ্গার দর্শনায় ট্রেনে কেটে  ইয়ামিন হোসেন (১৪) নামে এক মাদ্রাসা ছাত্র নিহত হয়েছে। নিহত  ইয়ামিন দামুড়হুদা উপজেলার বড় দুধপাতিলা গ্রামের আশরাফুল আলমের ছেলে এবং দর্শনার আনোয়ারপুর হাফিজিয়া মাদ্রাসার ছাত্র।
স্থানীয়রা জানায়, আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা  হঠাত পাড়া রেল ক্রসিং নামক স্থানে   রেল লাইন পার হওয়ার সময় ট্রেনে কেটে গুরুতর জখম হয় ইয়ামিন। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিলে জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মুত ঘোষণা করেন।
নিহত  ইয়ামিনের পিতা আশরাফুল আলম জানান, আজ দুপুরে বাইসাইকেলযোগে খাবার খাওয়ার উদ্দেশ্য বাড়িতে আসার সময় হঠাৎপাড়া রেল লাইন পার হওয়ার সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে।
চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক মাহবুবুর রহমান জানান, ট্রেনে কেটে ইয়ামিনের শরীর থেকে বাম পা বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে ও শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাত লেগেছে।  এ অবস্থায় জরুরি  বিভাগে আনার পর  তার শরীর থেকে অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরণের কারণে জরুরি বিভাগে  তার মৃত্যু হয়।
চুয়াডাঙ্গা রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মাসুদ  রানা   জানান,  খুলনা থেকে ছেড়ে আসা ঊর্ধ্বমুখী  রকেট মেইল ট্রেনটি দর্শনা হঠাৎ পাড়া আনোয়ারপুর নামক স্থানে ট্রেনে কেটে ওই মাদ্রাসা ছাত্র আহত হয়, পরে সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিৎসাধীন অবস্থায়  তার মৃত্যু  হয়।
  তার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য  চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা  হয়েছে।