বিচ্ছেদ নিষ্পত্তি হয়নি নুসরাত-নিখিলের

ছবি: সংগৃহীত

টালিউড অভিনেত্রী নুসরাত জাহানের সঙ্গে যে নিখিল জৈনের সম্পর্ক আদালত পর্যন্ত গড়িয়েছে, সে কথা সবারই জানা। শুক্রবার (৩ সেপ্টেম্বর) শুনানিতে দু’পক্ষের আইনজীবীই উপস্থিত ছিলেন। তবে বিচ্ছেদ মামলার শুনানি পিছিয়েছে।

 

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জিনিউজের প্রতিবেদনে জানা গেছে, এই মামলায় আরও সওয়াল জবাবের প্রয়োজন রয়েছে মনে করেন আলিপুর জেলা দায়রা আদালতের বিচারক।

 
সাংসদ-অভিনেত্রীর পাশাপাশি নুসরাতের এখন নতুন পরিচয় তিনি মা। যদিও এখনও সন্তানের পিতৃপরিচয় খোলসা করেননি নায়িকা।
 
গত বছরের শেষ থেকে নিখিল ও নুসরাতের সম্পর্কে টানাপোড়েন শুরু। এক ছাদের তলায় থাকেন না তারা। এরপর জল ঘোলা হওয়ার পর সংবাদমাধ্যমে একটি বিবৃতি দেন নুসরাত। যেখানে নিখিলের সঙ্গে তার সম্পর্কের সমীকরণ নিয়ে নুসরাত দাবি করেছিলেন, নিখিলের সঙ্গে তার বিয়ে হয়নি। লিভ টুগেদারে ছিলেন তারা। তারপর পাল্টা বিবৃতি দিয়ে নিখিল বলেছিলেন, আদালতে দেখা হবে।

 
এ বিতর্কের মাঝেই গত ২৬ আগস্ট (বৃহস্পতিবার) পার্কস্ট্রিটের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ছেলে সন্তানের জন্ম দেন নুসরাত, যে সন্তান নিজের নয় বলে আগেই দাবি করেছিলেন নিখিল। 
 
২০১৯ সালের ১৯ জুন নিখিল জৈনকে বিয়ে করেছিলেন নুসরাত। তুরস্কের বোদরুমে হয়েছিল তাদের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা। কিন্তু আইনি প্রক্রিয়ায় বিয়ে না হওয়ায় অ্যানালমেন্টের মাধ্যমে নুসরাতের থেকে আলাদা হতে চেয়েছেন নিখিল। শুক্রবারও তার নিষ্পত্তি হলো না। মামলার পরবর্তী শুনানি ৩ ও ৪ অক্টোবর।
 
নিখিলের সঙ্গে সম্পর্কের আইনি জট কীভাবে মেটাবেন নতুন মা, তা দেখার অপেক্ষায় অনুরাগীরা।
 
এদিকে ধীরে ধীরে সদ্যোজাত ছেলের বাবার পরিচয় প্রকাশ্যে আনতে চাইছেন নুসরাত! মা হওয়ার পর বৃহস্পতিবার (০২ সেপ্টেম্বর) ইনস্টাগ্রামে নতুন ছবি আপলোড করেছেন নুসরাত। অভিনেত্রীর মুখে মাতৃত্বের আনন্দ।
 
ছবির ক্যাপশনে নায়িকা লিখেন, ‘যাদের পরামর্শ নেবে না, তাদের কাছ থেকে সমালোচনাও শুনো না।’ হ্যাশট্যাগে লেখা, ‘নতুন ভূমিকা’ ‘নতুন মায়ের জীবনযাত্রা’, ‘নতুন মা’। তারই নিচে চিত্রগ্রাহক হিসেবে উল্লেখ করলেন সন্তানের বাবার কথা। লিখলেন, ‘ড্যাডি’, অর্থাৎ বাবা। এ লেখা দেখেই স্পষ্ট যে তিনি সন্তানের বাবার কথাই বললেন। যদিও বাবার নাম উল্লেখ করলেন না অভিনেত্রী।
 
তবে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া থেকে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফেরা, সন্তানকে কোলে নিয়ে গাড়িতে ওঠা- প্রতিটা মুহূর্তে নুসরাতের সঙ্গে যশ দাশগুপ্তকে দেখা গেছে। তাতে অনুরাগীদের অনুমান, যশই নুসরাতের সন্তানের বাবা।

এছাড়া, ছেলের নামকরণের মধ্য দিয়েই নুসরাত ইঙ্গিত দিয়েছিলেন যে তার সন্তানের বাবা যশ, এমনটাই দাবি ছিল নেটিজেনদের। এবার ছবির সৌজন্যে ড্যাডি লেখা দেখে অনেকেই মনে করছেন এভাবেই নুসরাত ইঙ্গিত দিয়েছেন যে তার সন্তানের বাবা যশ।