মোংলায় আ.লীগের দুইপক্ষের সংঘর্ষে আহত ১১

আ.লীগের দুইপক্ষের সংঘর্ষে আহতদের হাসপাতালে নেয়া হচ্ছে, ছবি: প্রতিনিধি

মোংলায় আওয়ামী লীগের বিবদমান দুই গ্রুপের সংঘর্ষে উভয়পক্ষের অন্তত ১১ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে ৬ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

 

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার সোনাইলতলা ইউনিয়নের তিন নম্বর ওয়ার্ডের বকুলতলা গ্রামে স্থানীয় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে উভয়পক্ষের ১১জন আহত হন। আহতদের মধ্যে ৬ জনকে রাতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। সোনাইলতলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি ফরিদ শেখ ও ইউনিয়নের তিন নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ শেখের সমর্থকদের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

সোনাইলতলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি ফরিদ শেখ বলেন, আব্দুল্লাহ শেখের নেতৃত্বে শতাধিক লোকজন ধারালো অস্ত্র ও লাঠিসোঠা নিয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় তার বাড়িতে ঢুকে দুটি ঘর ভাঙচুর করে। এ সময় তাদের হামলায় আলম শেখ (৪৫), রেজাউল শেখ (৪০), ফজলু শেখ (৫০), ওমর আলী শেখ (৬০), সবুর শেখ (৫০), হীরা বেগম (৬০) ও কোহিনুর বেগম (৪০) আহত হন। আহতদের মধ্যে সবুর শেখ বাদে বাকি সকলকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

অপরদিকে আব্দুল্লাহ শেখ বলেন, আমরা ফরিদের বাড়িতে যাইনি, ফরিদসহ তার লোকজন আমার লোকজনকে মারধর করে তার বাড়ির মধ্যে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় মোহাতার সরদার (৪০), হাসান (২৫), আব্দুল্লাহ শেখ (৩০) ও অহিদুল শেখ (২৬) আহত হয়েছে। মোতাহার সরদারকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মোংলা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মনিরুল ইসলাম বলেন, দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনার খবর পেয়ে আমি নিজে ওই এলাকা পরিদর্শন করেছি। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ওই এলাকায় পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।