দৌলতপুরে পদ্মায় ফের পানি বৃদ্ধি আতঙ্কে অর্ধলাখ মানুষ

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে পদ্মা নদীতে ফের পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। ফলে নতুন করে বন্যাকবলিতদের মাঝে আতঙ্ক, উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠা দেখা দিয়েছে। গত দু’দিন ধরে পানি বৃদ্ধির ফলে বন্যাকবলিত রামকৃষ্ণপুর ও চিলমারী ইউনিয়নের ৩৭ গ্রামের পানিবন্দি অর্ধলাখ মানুষের আবারো দুর্ভোগ বাড়বে।

এমনিতেই দীর্ঘদিন ধরে বন্যাকবলিত রামকৃষ্ণপুর ও চিলমারী ইউনিয়নের পানিবন্দি অর্ধলাখ মানুষ চরম দুর্ভোগ দুর্দশায় রয়েছে। পদ্মা নদীতে পানি বৃদ্ধির ফলে চরাঞ্চলের রামকৃষ্ণপুর ও চিলমারী ইউনিয়নের ৩৭টি গ্রাম বন্যাকবলিত হওয়ায় পানিবন্দি হয়ে পড়ে ওই সকল গ্রামের অর্ধলাখ মানুষ। পানি কমতে থাকায় কোমর অথবা হাঁটু পানির মধ্যে বসবাস করতে হচ্ছিল বন্যাকবলিতদের। গত ১লা সেপ্টেম্বর থেকে আবারো পদ্মা নদীতে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় নতুন করে উদ্বেগ উৎকণ্ঠা ছড়িয়ে পড়েছে বানভাসিদের মাঝে। প্রায় একমাস ধরে বন্যাকবলিত অর্ধলাখ মানুষ পানিবন্দি থাকায় তাদের মাঝে দেখা দিয়েছে পানিবাহিত নানা ধরনের রোগ।সংকট রয়েছে বিশুদ্ধ পানি, খাবার ও পশু খাদ্যের।

এদিকে পানিবন্দি অর্ধলাখ অসহায় মানুষের অনাহারে অর্ধাহারে দিন কাটলেও দুই ইউনিয়নে ১৬০০ প্যাকেট করে মাত্র ৩ হাজার ২০০ পরিবারকে ত্রাণ সহায়তা দেয়া হয়েছে যা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল। রামকৃষ্ণপুর ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজ মন্ডল জানান, গত দু’দিন ধরে বন্যার পানি আবারো বাড়ছে। প্রতিদিনই প্রায় দুই ইঞ্চি করে পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। ফলে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় আবারো বন্যাকবলিত মানুষের মাঝে শঙ্কার সৃষ্টি হয়েছে।