রাতে ফল খাওয়া ভালো না যে কারণে

আমাদের দেশে বিভিন্ন ঋতুতে ভিন্ন ভিন্ন ফলের সমাবেশ ঘটে, যেগুলো দেশি ফল নামে পরিচিত।

 

এগুলো কোনোটি মিষ্টি, কোনোটি টক আবার কোনোটি অপূর্ব স্বাদযুক্ত। আমাদের দেশে পুষ্টির চাহিদা জোগানে দেশি ফলের গুরুত্ব অপরিসীম। ফল বহুগুণে পুষ্টিকর উপাদানে ভরপুর একটি সুষম খাবার। এটি পেট ভরার পাশাপাশি স্বাস্থ্যের যত্ন নেয়। ফল খেলে ওজন কমে-ত্বক ভালো রাখে এবং বাড়ায় উজ্জ্বলতাও। ফল বিভিন্ন ধরনের পুষ্টিগুণসম্পন্ন, যা জীবদেহের পুষ্টিসাধন, দেহের ক্ষয়পূরণ, দেহের রোগপ্রতিরোধক শক্তি উৎপাদন এবং কর্মশক্তি ও তাপ উৎপাদনে বিরাট ভূমিকা রাখে। নিয়মিত ফল খাওয়া উচিত। কিন্তু ফলের সম্পূর্ণ উপকার পেতে হলে তা খেতে হবে সঠিক সময়ে।

 

রাতে ফল খাওয়া নিয়ে অনেক রকম কথা শোনা যায়। কারও মতে, রাতে ফল খাওয়া ভীষণ ক্ষতিকর। আবার কেউ নিশ্চিন্তে রাতে ফল খান অথচ কোনোরকম অসুস্থতাই অনুভব করেন না। তা হলে কি রাতে ফল খাওয়া আসলে ক্ষতিকর নয়?
বিশেষজ্ঞদের মতে, রাতে ফল খেলে শরীরের শর্করা এবং শক্তির মাত্রা বেড়ে যাবে। এ ক্ষেত্রে ঘুমও ব্যাহত হয়। তাই রাতে ফল খাওয়া এড়িয়ে চলা উচিত। তবে যদি সূর্যাস্তের আগে ফল খাওয়া হয় তাহলে ফলের সব রকমের উপাদান শরীরে ভালোভাবে প্রবেশ করে।
বিশেষজ্ঞদের মতে, সকালের নাশতায় ফল খেলে বেশি উপকার পাওয়া যায়। এ ছাড়া ব্যায়ামের পরে এবং শুরু করার আগে ফল খেতে পারেন।
আয়ুর্বেদ অনুসারে, খাওয়ার অন্তত ৩০ মিনিট পর ফল খাওয়া উচিত। আর যদি রাতে ফল খেতে হয় তা হলে শুতে যাওয়ার অন্তত ৩-৪ ঘণ্টা আগে ফল খাওয়া উচিত। ফল অনেক সহজে এবং তাড়াতাড়ি হজম হয়। পেট ভর্তি খাওয়ার পর ফল খেলে খাবারের আগে ফল হজম হয়ে যায়। ফলের পুষ্টিগুণ শরীরে দ্রুত প্রবেশ করার ফলে খাবারের অনেক পুষ্টিগুণ শরীরে শোষিত হয় না। হজমের সমস্যা হতে পারে।
আয়ুর্বেদ চিকিৎসায় আরও বলা হয়েছে, রাতে প্লেট ভর্তি ফল খাওয়া ঠিক নয়। যদি মিষ্টি খেতে ইচ্ছে করে, তাহলে শুধু একটি টুকরো ফল যেটাতে চিনি কম এবং ফাইবার বেশি থাকে, যেমন তরমুজ, নাশপাতি বা কিউই খেতে পারেন। এ ছাড়া ফল খাওয়ার পরপরই ঘুমাবেন না।
আর্য়ুবেদ চিকিৎসা অনুযায়ী, বিকেল কিংবা সন্ধ্যায় ফল খেলে হজমের সমস্যা হতে পারে। ঘুমের নিয়মেও হেরফের ঘটে সন্ধ্যায় ফল খাওয়া হলে। বিভিন্ন ফলেই প্রচুর পুষ্টির উপাদান থাকে। তার থেকে কর্মশক্তি বাড়ে। সন্ধ্যায় কাজের শেষে সেই খাবার খেলে কর্মক্ষমতা কাজে লাগে না। কিন্তু ঘুমও আসে না। এ ছাড়া, ফল হজম করতে সময় লাগে। সন্ধ্যার পর হজমশক্তি এমনিই কমে। তখন যদি কঠিন কোনও খাদ্য পেটে যায়, হজমের গোলমাল হতে পারে। তার প্রভাবও ঘুমের ওপর পড়ে। আবার অনেক ক্ষণ খালি পেটে থাকার পর ফল খেলেও অ্যাসিডিটি ও বদহজমের সমস্যা হতে পারে। এই বিষয়গুলো মেনে চললেই রাতে ফল খাওয়াতে কোনো বাধা নেই।