২ ছাত্রের অ্যাকাউন্টে ৯০০ কোটি রুপি!

স্কুল ইউনিফর্মের জন্য ভারতের বিহার রাজ্য সরকার অনুদান দেয়। সে অর্থ এসেছে কি না, তা জানতে বিহারের কাটিহার জেলায় স্টেট ব্যাংকের স্থানীয় সেন্ট্রালাইজড প্রসেসিং সেন্টারে (সিপিসি) গিয়েছিল দুই স্কুলছাত্র। এরপর যা হলো, তাতে রীতিমতো ভিরমি খাওয়ার জোগাড় তাদের। দেখা যায়, একজন ছাত্রের অ্যাকাউন্টে আছে ৯০০ কোটি রুপি। আর, অপর ছাত্রের অ্যাকাউন্টে ৬০ কোটি রুপি। এই বিপুল অর্থ অ্যাকাউন্টে দেখে চক্ষু চড়কগাছ তাদের। সংবাদমাধ্যম দ্য হিন্দুস্তান টাইমস এ খবর জানিয়েছে।

একের পর এক বিচিত্র ঘটনা ঘটছে ভারতের বিহার রাজ্যে। সেখানকার মানুষের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা ঢুকে যাচ্ছে। এর আগে, বিহারের খাগরিয়া জেলায় এক ব্যক্তির ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ব্যাংকের ত্রুটির কারণে সাড়ে পাঁচ লাখ টাকা জমা হয়েছে।

রঞ্জিত দাস নামে ওই ব্যক্তি টাকা ফেরত দিতে অস্বীকার করেছিলেন। তিনি দাবি করেছেন, তাঁর অ্যাকাউন্টে জমা করা টাকা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি পাঠিয়েছেন। কারণ, তিনি প্রত্যেকের অ্যাকাউন্টে ১৫ লাখ টাকা জমা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। পরে টাকা ফেরত না দেওয়ায় ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

বিহারের কাটিহার জেলায়ও একই রকম ঘটনা ঘটেছে। দুই শিশুর ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ৯০০ কোটি টাকা জমা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে মানে কাটিহারের ব্যাংকে। বিষয়টি দেখে ব্যাংক কর্মকর্তারা হতবাক হয়ে যান।

কারণ, তারা নিজেও নিশ্চিত নন যে- সেই টাকা কোথা থেকে এসেছে। এ ঘটনা পুরো এলাকার মানুষকে অবাক করে দিয়েছে এবং অনেকেই অনুরূপ কিছু দেখার আশায় নিজ নিজ অ্যাকাউন্ট চেক করতে আগ্রহী হয়েছেন।